তামিম হাসান

গল্পঃ স্বপ্ন

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : মে ৮, ২০১৯ ০২:০০:৫১ পূর্বাহ্ন
0

তামিম হাসান: তখন লুকাস ইংল্যান্ডের একটা কলেজে পড়ত। লুকাস পড়াশুনার পাশাপাশি মোটরসাইকেল রেসিং করে। বাইক রেসিংয়ে বেশ ভালোই জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলো লুকাস। শরৎের একটা ঝলমলে ঋতু। আকাশে শুধু সাদা মেঘের ছড়াছড়ি, তখন বিকেল সাড়ে পাচঁটা বাজে। লুকাস সেদিন বাইক রেসিং ম্যাচে প্রতিযোগিতা প্রস্তুতি গ্রহন শেষে ৩৭ দেশের বাইক রেসারের সাথে বাইক রেসিং শুরু করল। প্রায় ৮০ কিলোমিটার এর এই রেসিং,প্রত্যেক মোটরসাইকেলের গতি ছিলো অসাধারণ।

লুকাসের বাইক বাতাসের গতিতে চলছিলো। কিন্তু হঠাৎই একটা ছোট ভুলের কারনে লুকাস সারা জীবন একটা স্থায়ী বিপদের সম্মুখীন হয়ে গেছিলো। লুকাস ৪৯ কিলোমিটার চলে আসার পরেই একটা বাইকের সাথে ধাক্কা লাগে লুকাস বাইক থেকে ছিটকে পড়ে যায় রাস্তার পাশে রেলিং এর উপর। লুকাস রাস্তার মাঝে পড়ে ছিলো। কতৃপক্ষ এম্বুলেন্সে করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে নেওয়ার পরেই লুকাস জ্ঞান হারায়।

লুকাসের বাবা -মা বেশ চিন্তিত হয়ে পরলেন। লুকাস দীর্ঘ ৩৬ দিন কোমায় ছিলো।অনেকদিন পরে হঠৎাই একদিন লুকাসের জ্ঞান ফিরল। লুকাস যখন তার বিছানায় বসে তার বা পায়ের দিকে তাকাল সে অবাক!!!

লুকাসের বা পা কেটেঁ ফেলতে হয়েছিলো। লুকাস স্বপ্নেও এ কথা ভাবতে পারেনি।লুকাসের বাড়ি ফেরার সময় হয়েছিলো। লুকাস বাড়ি ফিরে সবসময় হতাশায় থাকত। সে ৫ সপ্তাহ কলেজে যায় না। লুকাসের বাবা -মা সবসময় তাকে অনুপ্রেরনা দিত সামনে এগিয়ে যাওয়ার। সেদিন সকালে লুকাস হুইল চেয়ারে করে কলেজে এলো। লুকাসের বন্ধুরা সবাই তার দিকে হতবাক হয়ে তাকিয়েছিলো। লুকাস সবসময় বাইক নিয়ে কলেজে আসত আর আজ সে হুইল চেয়ারে।

লুকাস তার স্বপ্ন গুলো পূরন করতে রীতিমতো বাধা প্রাপ্ত হলো। সে নতুন কিছু ভাবতে শুরু করলো। সেদিন লুকাস খেলার মাঠে বসে খেলা দেখছিলো। হঠাৎই এক ভদ্র লোক লুকাসের নিকট এসে বসল। লুকাসের সাথে লোকটার মোটামুটি অনেক কথা হয়েছিলো। লুকাস তার দূর্ঘটনার কাহিনী ও স্বপ্ন ভাঙনের কাহিনী সবটাই তার সাথে শেয়ার করল।
লোকটা লুকাসকে বলল তুমি ছবি আকঁতে পারো?
লুকাস বলল, হ্যাঁ আমি স্কুলের প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকবার প্রথমও হয়েছি।
লোকটা মুচকি হাসি দিয়ে বলল গ্রেট!!
লোকটা বলল “আমি রিচার্ড টম।
ব্লু আর্ট একাডেমীর একজন আর্ট টিচার। তুমি চাইলে আমাদের একাডেমীতে ভর্তি হতে পারো। ওখানে তোমার মতো অসংখ্য ছেলে মেয়ে আছে।তারাও সংগ্রাম করে স্বপ্ন ও ইচ্ছে পূরণ করছে। আচ্ছা আগামিকাল বিকেল পাচঁটায় একাডেমীতে এসো।

পরের দিন……

পরেরদিন বিকেলে লুকাস “ব্লু আর্ট একাডেমীতে আসলো। লুকাস মিলনায়তন রুমে প্রবেশ করে রীতিমত অবাক।রুমের চারদিকে হুইল চেয়ারে বসে অনেক কিশোর কিশোরী, তরুন, যুবক তারা ছবি আকঁছে। লুকাস শিক্ষক রিচার্ড টমের সাথে দেখা করল। এবং আর্ট একাডেমীটায় ভর্তি হলো। লুকাস
একাডেমীটায় ৩ বছর পড়ার পরে তারপর মোটামুটি একজন সফল চিএ শিল্পী হয়ে গিয়েছিলো। লুকাস বর্তমানে আমেরিকার টেক্সাস শহরে একটি আর্ট একাডেমী প্রতিষ্ঠা করেছে।

লুকাস তার উদ্যম ইচ্ছে শক্তি, ভাগ্য ও স্বপ্নর জন্যই আজকে একজন সফল মানুষ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

লেখকঃ তামিম হাসান, শিক্ষার্থী, নবম শ্রেণি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here