২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে ম’হামা’রী কভিড-১৯ ক’রোনাভা’ইরাসে। এটি এত দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে যে তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে নাগরিকদের রক্ষা করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ছোট-বড় রাষ্ট্রগু’লিকে। অনেক বেশি ভাবনা-চিন্তা বা সময়ক্ষেপণের সুযোগ নেই, তাই স’রকারগুলোকে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। এছাড়া তাদের কাছে তার কোনো উপায়ও নেই। বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার তারা ব্যয় করছে ক’রোনা মোকাবেলায় কিন্তু মূল সমস্যা সমাধানে বা’ধা হয়ে দাঁড়িয়েছে দেশের বিদ্যমান সমাজ কাঠানো।

উন্নত, অনুন্নত সব দেশেই ক’রোনাভা’ইরাসে মোকাবেলায় স’রকারের গৃহীত নানা নীতি বা’ধাগ্রস্ত হচ্ছে কিছু দু’র্নীতিবাজ লোকের জন্য। এরকম কয়েকটি দেশের দু’র্নীতি নিয়ে খবর প্রকাশ করেছে দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট। যার মধ্যে আছে রোমানিয়া, আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া ও বাংলাদেশের কথাও। প্রতিবেদনে বাংলাদেশের চাল কে’লেঙ্কারির কথা বলা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, দু’র্নীতিবাজদের জন্য ত্রাণ কার্যক্রমের বি’ষয়টিকে ঢেলে সাজাতে হচ্ছে বাংলাদেশ স’রকারকে। প্রায় ৫০ জনের মতো আমলা ও স্থানীয় কর্মকর্তার বি’রুদ্ধে ত্রাণের চাল বেশি দামে পুনরায় বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২ লাখ ৭২ হাজার ১৫৫ কেজি চালে হিসাব পাওয়া যাচ্ছে না।

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক ইফতেখায়রুজ্জামানের উদ্ধৃতি দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এসব ধরনের জাতীয় দু’র্যোগ মানুষের সেরা গুণগুলো বের করে আনে, সহমর্মিতা, সংহতি- নানা ক্ষেত্রে আমরা যার প্রমাণ দেখি। কিন্তু সবচেয়ে অনুতাপ ও লজ্জার বি’ষয় এসময় মানুষের সবচেয়ে খা’রাপ দিকটাও বেরিয়ে পড়ে।

Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।