৪ জনকে দায়ী করে চিরকুট লিখে ফাঁ’স নিলেন কলেজছাত্র

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : নভেম্বর 27, 2021 09:47:47 পূর্বাহ্ন
0
14
views

নিজের মৃ’ত্যুর জন্য চারজনকে দায়ী করে তাদের নাম চিরকুটে লিখে গ’লায় ফাঁ’স দিয়ে আত্মহ’’ত্যা করেছেন মারুফ হোসেন আকাশ (২২) নামে এক কলেজছাত্র। মারুফ রাজশাহীর কা’টাখালী থানার কুখণ্ডি এলাকার আবু তালুকদারের ছেলে। তিনি জে’লার পুঠিয়া উপজে’লার বানেশ্বর কলেজের অনার্স সমাজকর্ম বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে ঘরের দরজা ভে’ঙে তার ম’রদেহ উ’দ্ধার করে পুলিশ। সু’রতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর সন্ধ্যায় ম’য়নাত’দন্তের জন্য তার ম’রদেহ রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল ম’র্গে পাঠানো হয়।

পরিবারের সদস্যদের জি’জ্ঞাসাবাদের পর প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারণা বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) রাতে বা শুক্রবার ভোরের দিকে কোনো এক সময় এ আত্মহননের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। পরিবারের সদস্যরা শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে তার ঘরে যায় এবং দরজার ফাঁক দিয়ে তার ঝু’লন্ত ম’রদেহ দেখতে পায়। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ দুপুরে ঘটনাস্থলে আসে।

আত্মহ’’ত্যার আগে লেখা ওই চিরকুটে তিনি রবিন, হৃদয়, সজল ও জুয়েল নামে চারজনের নাম লিখে গেছেন। আর এদের নামের নিচে লিখে গেছেন- ‘আমার মৃ’ত্যুর জন্য এরা দায়ী’। মারুফ ওই চিরকুটে আরও লিখে গেছেন, ‘মা আমাকে মাফ করে দিস। মুন্নি আমি তোকে অনেক ভালবাসি। ভালো থাকিস তুই সুখে থাকিস। ’রাজশাহীর কা’টাখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিদ্দিকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি এ চিরকুট পাওয়ার কথাও স্বীকার করেছেন।

ওসি বলেন, পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে চার যুবক মারুফের মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। পরে তাদের কাছে ওই মোবাইল ফেরত চাইতে গেলে না দিয়ে উল্টো তাকে ধরে পে’টায় ওরা। বাইরে থেকে বিমর্ষ অবস্থায় বাড়ি ফিরে মারুফ তার ঘরে ঢুকে যান। এরপর কোনো এক সময় গ’লায় ওড়না পেঁ’চিয়ে আত্মহ’’ত্যা করেন তিনি।

শুক্রবার সকালে অনেকক্ষণ তারা কোনো সাড়া না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা বেলা ১১টার দিকে মারুফকে ডাকতে যান। এ সময় দরজার ফাঁক দিয়ে ঘরের মধ্যে ঝু’লন্ত অবস্থায় তার ম’রদেহ দেখতে পান। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। ওই বাড়িতে মারুফের বাবা-মা ও এক ভাইও বসবাস করেন।

সিদ্দিকুর রহমান জানান, তারা বি’ষয়টি ত’দন্ত করে দেখছেন। সু’রতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর আইনগত প্রক্রিয়া শেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় তার ম’রদেহ রামেক হাসপাতাল ম’র্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাত’দন্তের পর তার ম’রদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এছাড়া আপাতত এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃ’ত্যুর মা’মলা হবে। সংশ্লিষ্টদের জি’জ্ঞাসাবাদ ও ত’দন্ত শেষে অন্য কোনো কিছু বেরিয়ে এলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে