তিন ঘণ্টায় ৩ স’ন্তানের মৃ’ত্যু, টাকার অভাবে ঢাকায় নিতে পারল না বাবা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : নভেম্বর 4, 2021 11:33:10 পূর্বাহ্ন
0
12
views

সারাদেশ: কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজে’লার পান্টি ইউনিয়নের পান্টি গ্রামের সাদিয়া (২৪) নামে এক মা পাঁচ স’ন্তানের জন্ম দিয়েছেন। একসঙ্গে চার মেয়ে ও এক ছেলের জন্ম হলেও তিন শি’শু মা’রা গেছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে প্রথম মা’রা যায় ছেলে স’ন্তানটি। পরে একে একে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আরও দুই স’ন্তানসহ মোট তিন স’ন্তান মা’রা গেলো। এ অবস্থায় জীবিত অপর দুই শি’শুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শি’শুদের বাবা সোহেল রানা বলেন, আমার এক ছেলে ও দুই কন্যা স’ন্তান মা’রা গেছে। খুবই ক’ষ্ট লাগছে। আর বাকি দুই মেয়ে শি’শুও ঝুঁ’কিতে আছে। স্ক্যানো ওয়ার্ডে তাদের অক্সিজেন চলছে। তবে তাদের মা সুস্থ আছে। শি’শুর ওজন কম হওয়ায় ঢাকায় নিয়ে যেতে বলেছেন চিকিৎসক। কিন্তু অর্থের অভাবে ঢাকায় নিতে পারিনি।

শি’শুদের দাদা সামাদ আলী বলেন, তিন শি’শু মা’রা গেছে। তাদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গ্রামের গোরস্থানে আলাদাভাবে তাদের দাফন করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমরা দরিদ্র, আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো না। ছেলে সোহেলের চা দোকানের আয়ে সংসার চলে। টাকার অভাবে শি’শুদের ঢাকায় নিয়ে যেতে পারিনি। যদিও চিকিৎসকরা প্রথম থেকেই ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। টাকার অভাব না থাকলে হয়তো শি’শুদের ঢাকায় নিয়ে যেতে পারতাম। সবগুলো শি’শু একসঙ্গে বেড়ে উঠলে ভালো লাগতো।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আশরাফুল আলম বলেন, গর্ভধারণের পাঁচ মাসের মাথায় জন্ম নেওয়া শি’শুদের ওজন স্বাভাবিকের চেয়ে কম ছিল। বাচ্চাদের ওজন ৪৩০ গ্রাম থেকে ৬৫০ গ্রামের মধ্যে। তিনি আরও বলেন, জন্ম নেওয়া শি’শুদের তিনজন মfরা গেছে। সকালে একমাত্র শি’শু স’ন্তানটি ও বিকেলে আরও দুই কন্যা স’ন্তান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যায়।