মু’সলিম সতীর্থের পক্ষে কথা বলায় কোহলির মেয়েকে ধ”ণের হু’মকি

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : নভেম্বর 2, 2021 10:29:23 পূর্বাহ্ন
0
9
views

খেলাধুলা: ‘আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি’-নচিকেতা চ’ক্রবর্তীর এই জনপ্রিয় গানে অন্ধের দেশ বলতে কোন দেশকে বোঝানো হয়েছে, তা হয়তো প্রথমে বোধগম্য হবে না। তবে ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি যদি এই গান শুনে থাকেন, তবে নিশ্চিতভাবে তিনি তার স্বদেশকে ‘অন্ধের দেশ’ বলবেন।

ঘটনা ২৪ অক্টোবরের। দুবাইয়ে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে ভারতের ১০ উইকে’টের পরাজয়ের পর মোহাম্ম’দ শামিকে ধর্মীয়ভাবে আ’ক্রমণ করা হয়। এরপর ৩০ অক্টোবর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগের দিন দলের মু’সলিম সতীর্থ শামির ও’পর আ’ক্রমণকারীদের ‘মেরুদ’ণ্ডহীন’ বলে আচ্ছামতো ধুয়ে দেন কোহলি। এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভারতীয় অধিনায়কের ১০ মাস বয়সী শি’শুকন্যা ভামিকা কোহলিকে ধ”ণের হু’মকি দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় কোহলি এখন পর্যন্ত মুখ খোলেননি। তবে এর আগে তার স্ত্রীর প্রতি করা বাজে মন্তব্যের জেরে সরাসরি ইনস্টাগ্রামে প্র’তিবাদ জানিয়েছিলেন কোহলি। লিখেছিলেন, ‘যারা নারীদের সম্মান দিতে জানে না, তারা নিজেদের কিভাবে শিক্ষিত মানুষ হিসেবে দাবি করে । একবার যদি তাদের মা, বোন, স্ত্রী, মেয়েকে নিয়ে সরাসরি এমন জঘন্য মন্তব্য করা হয়, তাহলে তাদের কেমন লাগবে।’

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচিত মুখ সাবেক গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব আন্দ্রে বরগেসও এই ঘটনায় নিজের ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছেন। তিনি এক টুইটে লিখেছেন, ‘কোহলি এবং আনুশকা শর্মার ১০ মাস বয়সী মেয়েকে ধর্ষনের হু’মকি দেওয়া হয়েছে। কারণ কোহলি তার মু’সলিম সতীর্থের পক্ষে কথা বলেছি।’

ধ”ণের হু’মকি দেওয়া ওই ব্যক্তি কিছুক্ষণ পর টুইট মুছে ফেললেও, তার পরিচয় নাকি জানা গেছে। শুরুতে তাকে পাকিস্তানি বলে তথ্য ছড়িয়ে পড়লেও, ভারতীয় সাংবাদিক রিতিকা জৈন তার ভেরিফাইড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে করা এক টুইটে লিখেছেন, কোহলির ১০ মাস বয়সী মেয়েকে ধ”ণ হু’মকি কোনো পাকিস্তানি দেয়নি। দিয়েছে এক তেলুগুবাসী ভারতীয়।