প্রেমিকার হামলায় প্রেমিক হাসপাতালে

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : নভেম্বর 1, 2021 10:34:57 পূর্বাহ্ন
0
13
views
প্রতীকী ছবি

সারাদেশ: পিরোজপুরে প্রেমিকার হা’মলায় সাগর খলিফা (৩৫) নামের এক প্রেমিক আ’হত হয়েছে বলে অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে পিরোজপুর পৌর এলাকার ভাইজোড়া দক্ষিণ নামাজপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আ’হত ব্যক্তি পিরোজপুর মঠবাড়িয়া উপজে’লার সাফা ফুলঝুড়ি এলাকার আব্দুল আজিজ খলিফার ছেলে সাগর খলিফা (৩৫)।

আ’হত সাগর জানায়, বেশ কয়েক বছর আগে থেকে পিরোজপুর সদর উপজে’লার দক্ষিণ নামাজপুর এলাকার আলী আকবরের মেয়ে নুসরাত ফারিয়ার সঙ্গে সাগরের পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে সম্পর্ক প্রেমে গড়ায়। প্রেমের সূত্র ধরে ফারিয়া তার ভাইকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে সাগরের কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা ধার নেয়। নির্দিষ্ট সময়ে টাকা পরিশোধ না করায় সম্পর্ক মা’মলাতে গড়ায়।

এক পর্যায়ে মীমাংসাও হয়। কিন্তু মেয়ে পুনরায় ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে ছেলে তাতে সাড়া দেয় না। পরে আজ রোববার (৩১ অক্টোবর) ওই এলাকায় সাগর তাদের জমি দেখে ফেরার সময় মোটরসাইকেলের গতি রোধ করে নুসরাত তার সহযোগীরা ধা’রালো অ’স্ত্র নিয়ে তার ও’পর হা’মলা চা’লায়। এতে তার পায়ে আ’ঘাত লেগে জ’খম হয়। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উ’দ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাগরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।

এ বি’ষয়ে নুসরাতের মা ফাতেমা বেগম আরটিভি নিউজকে জানান, সাগর একজন মা’দক ব্যবসায়ী। প্রায় দুই বছর ধরে সাগর বিভিন্ন ভাবে নুসরাতকে উত্যক্ত করে আসছিল। এক পর্যায়ে তার মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সাগরের বিয়ে এবং ছেলে-মেয়ে থাকায় তারা সে বিয়েতে রাজি হননি। এতে সে ক্ষি’প্ত হয়ে বিভিন্ন সময়ে নুসরাতদের পাকঘর, গোয়ালঘরে আ’গুন দেয় এবং এক পর্যায়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের আ’সামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মা’মলা দা’য়ের করে।

তিনি আরও জানান, ঘটনাটি মি’থ্যা প্রমাণিত হওয়ায় মা’মলাটি খারিজ হয়। পরে রোববার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে সাগর তার দুই সহযোগী নিয়ে জোড় করে নুসরতকে ধরে মোটরসাইকেলে তুলতে গেলে তিনি তাকে ধরে রাখার চেষ্টা করেন। এতেও তিনি রাখতে সক্ষম না হলে কাছে থাকা একটি দা তার দিকে ছু’ড়ে মারলে সেটি সাগরের পায়ে গিয়ে পড়ে। এতে সে আ’হত হয়।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ই’নচার্জ (ওসি) আ. জা. মো. মাসুদুজ্জামান আরটিভি নিউজকে বলেন, এ খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কিন্তু সেখানে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি। আ’হতদের পক্ষ থেকে কোনো অ’ভিযোগ পাওয়া যায়নি। অ’ভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।