কাপাসিয়ায় ইউপি নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ছবি তোলায় সাংবাদিকের উপর হামলা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : অক্টোবর 31, 2021 07:06:04 অপরাহ্ন
0
6
views

শামসুল হুদা লিটন, কাপাসিয়া (গাজীপুর) থেকেঃ গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ মিজানুর রহমান মাষ্টারের সমর্থকদের নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এসময় ছবি তোলতে গিয়ে দৈনিক যুগান্তর ও আনন্দ টিভি’র সাংবাদিক খোরশেদ আলম খান তাদের হামলার শিকার হয়েছেন। তারা তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় রাস্তায় ফেলে দেয়।

কাপাসিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবাইয়া ইয়াসমিন ওই প্রার্থীকে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে জরিমানা করেন। জরিমানা দিতে অস্বীকার করেন মিজানুর রহমান ও তাঁর সমর্থকেরা। তারা জরিমানা না দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে ঘিরে ফেলেন।

এ সময় তাদের হামলার শিকার সাংবাদিক খোরশেদ আলম খানকে আশপাশের লোকজন উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত শনিবার বিকেলে চাঁদপুর ইউনিয়নের নলগাঁও বাজারে চেয়ার-টেবিল সাজিয়ে মিজানুর রহমানের সমর্থকেরা জনসভার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রুবাইয়া ইয়াসমিন সেখানে হাজির হয়ে তাঁদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে সতর্ক করেন। এ সময় নৌকা মার্কার প্রার্থী মিজানুরের ছেলের নেতৃত্বে একটি মোটরসাইকেল বহর সেখানে হাজির হলে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

মিজানুর ও তার সমর্থকেরা এ জরিমানা দিতে অস্বীকৃতি জানালে চরম উত্তেজনা ও হট্টগোল সৃষ্টি হয়। চেয়ারম্যানের লোকজন প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও চার পুলিশ সদস্যকে ঘিরে ফেলেন। এ দৃশ্য ধারণ ও ছবি তুলতে থাকেন আনন্দ টিভি ও দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার কাপাসিয়া উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক খোরশেদ আলম খান। ঘটনার দৃশ্য ধারণ ও ছবি তোলার কারণে চেয়ারম্যানের লোকজন তাঁর উপর চড়াও হয় এবং সাংবাদিকের উপর তারা হামলা চালান।এ সময় তারা তাঁকে বেধড়ক পিটিয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রাখেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবাইয়া ইয়াসমিন আত্মরক্ষার্থে গাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেন। গাড়িতে বসে তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এ কে এম গোলাম মোর্শেদকে বিষয়টি জানান।

তৎক্ষনাত ইউএনও কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ এফ এম নাসিমসহ অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে সেখানে হাজির হন। পরে প্রার্থীর কাছ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের করা জরিমানার টাকা আদায় করেন।

ওসি এ এফ এম নাসিম বলেন, ‘ইউএনও মহোদয়কে সঙ্গে নিয়ে আমরা ঘটনাস্থলে হাজির হই। এই ঘটনায় একজন সাংবাদিক আহত হয়েছেন। তিনি অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ এদিকে সাংবাদিক খোরশেদ এর উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দোষী ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেছেন কাপাসিয়ার সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।