বিয়েবাড়িতে ‘তালেবানের’ হামলা, ‘বাজনা বন্ধ কর’ বলেই গুলি

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : অক্টোবর 31, 2021 04:10:13 অপরাহ্ন
0
12
views

দুই থেকে তিনজন অস্ত্রধারী নিজেদের ‘তালেবান’ দাবি করে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে হানা দিয়ে গুলি ছুড়ে দুজনকে হত্যা ও কমপক্ষে ১০ জনকে আহত করেছে। আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে চলমান বাজনা থামাতে বলে এবং পরে গুলি ছোড়ে। তালেবানের একজন মুখপাত্র জানান, তিনজন বন্দুকধারীর মধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিন্তু তারা অস্বীকার করেছে যে তারা ইসলামী আন্দোলনের পক্ষে কাজ করেছে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানরা যখন দেশ শাসন করেছিল তখন সঙ্গীত নিষিদ্ধ করা হয়। তবে তালেবানের বর্তমান কর্তৃত্ব এখনো এ ধরনের কোনো আদেশ জারি করেনি। এক প্রত্যক্ষদর্শী বিবিসিকে জানায়, শুক্রবার নানগারহার প্রদেশের সুরখ রোড জেলায় যৌথ বিয়েতে চার দম্পতির বিয়ে হচ্ছিল। তারা স্থানীয় এক তালেবান নেতার কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছিল এমন একটি এলাকায় রেকর্ড করা গান বাজানোর জন্য, যেটা শুধু মহিলাদের জন্য ব্যবহার করা হয়।

গভীর রাতে বন্দুকধারীরা জোর করে অনুষ্ঠানে প্রবেশ করে এবং লাউডস্পিকার ভেঙে ফেলার চেষ্টা করে। এ সময় অতিথিরা প্রতিবাদ করলে তারা গুলি চালায়। তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। ইসলামিক স্টেট নানহারহারে সক্রিয় এবং তারা এ ধরনের আরো কয়েকটি হামলার সঙ্গে জড়িত। তালেবান ক্ষমতা দখলের পর থেকে তারা এর বিরোধিতা করে আসছে। এ বছরের আগস্টে আফগানিস্তানের দখল নেয় তালেবান। এর আগের শাসনামলে দলটি ইসলামী আইনের কঠোর প্রয়োগ ঘটায়।

তবে সম্প্রতি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চাওয়ার কারণে তালেবান নিজেদের মধ্যপন্থী হিসেবে জাহির করার চেষ্টা করছে। তালেবানরা ক্ষমতায় ফিরে আসার পর গোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে একজন গায়ককে হত্যা এবং যন্ত্র ভেঙে ফেলার অভিযোগ ওঠে। অনেক গায়ক ও সঙ্গীতশিল্পী এর মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে পালিয়ে গেছে।
সূত্র : বিবিসি