টিকা দেয়ার কথা বলে গৃ’হবধূকে পু’ড়িয়ে হ’’ত্যার চেষ্টা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : আগস্ট 8, 2021 08:32:09 অপরাহ্ন
0
13
views

সারাদেশ: নরসিংদীর রায়পুরায় প্রবাসীর স্ত্রীকে টিকা দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে শরীরে পেট্রোল ঢেলে আ’গুনে পু’ড়িয়ে মা’রার চেষ্টার অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার দিবাগত রাত ১০টায় উপজে’লার উত্তর বাখরনগর ইউনিয়নের লোচনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার দেবর আলী হোসেন ও ননদ তাসলিমা বেগমের বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ করেন অগ্নিদ’গ্ধ প্রবাসীর স্ত্রী পারভীন বেগম (৩০)।

তিনি জানান, ১০ বছর আগে পারিবারিকভাবে মরজাল ইউনিয়নের পাহাড় মরজাল এলাকার জাকির হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। তাদের দাম্পত্য জীবনে ১০ বছর বয়সী একটি কন্যা স’ন্তান রয়েছে। তার স্বামী প্রবাসে থাকায় প্রায়ই শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে ও তার স’ন্তানের ও’পর কারণে-অকারণে নি’র্যাতন করতো। বছরখানেক পূর্বে দেবর আলী হোসেন তার স’ন্তানের পায়ে দা দিয়ে কোপ দেয়। নাতনির পায়ে কোপ দেয়ার ঘটনায় পারভীনের বাবা দানা মিয়া থানায় একটি মা’মলাও দা’য়ের করেছিল।

এরপর থেকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ওই মা’মলা তুলে নিতে পারভীনের ও’পর নি’র্যাতন ও চা’প প্রয়োগ করে আসছিল। ফলে সে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়ি সোবানপুরে গিয়ে থাকত। গত শনিবার টিকা দেয়ার নাম করে পারভীনকে বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়িতে ডেকে নেয়া হয়। পরে বিকালে তার দেবর আলী হোসেন, ননদ তাসলিমা বেগম, তার ছেলে শাহরিয়ার ও জা রহিমা বেগমের সঙ্গে শ্বশুরবাড়ি থেকে টিকা দেয়ার উদ্দেশ্যে বের হয়।

সিএনজিতে উঠলে কিছুক্ষণ পর তার চোখমুখ বেঁ’ধে ফে’লে ননদ ও দেবর। এক পর্যায়ে তার দেবর তরল জাতীয় কিছু শরীরে ঢেলে দিয়ে সিএনজি থেকে টেনে নিচে নামিয়ে এনে আ’গুন ধরিয়ে দিলে অগ্নিদ’গ্ধ নারীর চি’ৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। এ সময় স্থানীয়রা তাকে রায়পুরা উপজে’লা স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। উপজে’লা স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত স’রকারি সার্জন ডা. এ.কে.এম. রেজাউল ইসলাম খান জানান, পারভীন বেগমের শরীরের প্রায় ৮০ ভাগ পু’ড়ে গেছে।

এ অবস্থায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকা শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। রায়পুরা থানার পুলিশ পরিদর্শক (ত’দন্ত) গোবিন্দ স’রকার বলেন, উক্ত ঘটনায় থানায় একটি মা’মলা রজু হয়। ঘটনায় সঙ্গে জ’ড়িত থাকার অ’ভিযোগে আলী হোসেন ও শাহরিয়ার নামে দু’জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। ত’দন্ত শেষে তার প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে।