দরজায় গো’পন কোড বললেই বেরিয়ে আসে ইয়াবা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : আগস্ট 3, 2021 09:52:41 পূর্বাহ্ন
0
19
views

সারাদেশ: এ যেন নতুন স্টাইলে মা’দক ব্যবসা। দরজার সামনে দাঁড়িয়ে দিতে হবে কোড, ব্যাস কোড সঠিক থাকলে সাথে সাথে বের হয়ে আসবে ইয়াবা। ব্যতিক্রমীভাবে এই ইয়াবা কেনা বেচা চলছে চট্টগ্রাম নগরীর ডবলমুরিং আবু সওদাগরের কলোনির গেটের সামনে। গেটের সামনে দাঁড়িয়ে শুরুতে দুই টোকা দিতে হয়। এরপর ভেতর থেকে আওয়াজ আসে, ”কে?”। তখন বলতে হয় নির্দিষ্ট গো’পন কোড। কোড বললেই ছোট ছিদ্র দিয়ে বেরিয়ে আসে ইয়াবা।

কোডিং পদ্ধতিতে ইয়াবা বিক্রির সময় দুই নারী মা’দক কারবারিকে গ্রে’প্তার করেছে পুলিশ। গেল রোববার (১ আগস্ট) রাতে আবু সওদাগরের কলোনি গেট থেকে তাদের গ্রে’প্তার করা হয়। সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। গ্রে’প্তারকৃতরা হলেন লাকী আক্তার ও নিলুফা বেগম। লাকীর বি’রুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় ছয়টি এবং নিলুফার বি’রুদ্ধে একটি মা’মলা রয়েছে।

পুলিশ জানায়, আবু সওদাগরের কলোনির গেটের সামনে তারা ইয়াবা বিক্রি করতেন। গেটের সামনে দাঁড়িয়ে শুরুতে দুই টোকা দিলে ভেতর থেকে আওয়াজ আস কে। তখন গো’পন কোড বললেই ছোট ছিদ্র দিয়ে বের করে দেন ইয়াবা।’ ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্ম’দ মহসীন একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘রোববার ওইস্থানে ইয়াবা বেচাকেনার সময় নিলুফাকে হাতেনাতে গ্রে’প্তার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে লাকিকেও গ্রে’প্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ৫২ পিস ইয়াবা উ’দ্ধার করা হয়।’

ওসি আরো বলেন, ‘ তাদের যে কোড ওয়ার্ড, সেটা একেক সময় একেক রকম হতো। যেমন, গতকাল ছিল ‘বিস্কুট’। নির্দিষ্ট সংখ্যক বিস্কুট বলার পর সেই সংখ্যক ইয়াবাই বের হয়। এর আগে ‘গরুর গোশত’ ‘হাড্ডি’ ‘ বিচি’ ইত্যাদি কোড ওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে।’ গ্রে’প্তারকৃত দুজনের বি’রুদ্ধে নতুন করে মা’মলা করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে তাদেরকে চট্টগ্রাম মুখ্য মহানগর হাকিম আ’দালতে নিলে বিচারক কা’রাগারে পাঠিয়েছেন বলে জানান ওসি।