পরীমনি ইস্যু কি জাতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল? বললেন তথ্যমন্ত্রী

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জুন 21, 2021 05:10:53 অপরাহ্ন
0
11
views

সম্প্রতি ঢাকা বোট ক্লাবে ঢালিউড অভিনেত্রী পরীমনির হে’নস্তার শি’কার হওয়া এবং তার বি’রুদ্ধে অল কমিউনিটি ক্লাবে ভা’ঙচুরের অ’ভিযোগ আনার ঘটনাকে ‘একটি বাজে বি’ষয়’ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ। ঘটনাগুলো জাতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ কি না সে প্রশ্নও তুলেছেন তিনি। স’চিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সোমবার (২১ জুন) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এটি একটি বাজে বি’ষয়। আমি এটি নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না। তবে কেউ হে’নস্তার শি’কার হওয়া ঠিক নয়, আর কেউ অহেতুক হ’য়রা’নি হওয়া ঠিক নয়।’ ঘটনাগুলো জাতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ কি না সেটা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘ঢাকা শহরে মধ্যরাতে কোথায় গিয়ে কে ম’দ্যপান করল আর সেখানে ম’দ্যপান করতে গিয়ে ভা’ঙচুর হলো। সেই ভা’ঙচুরের পরিপ্রেক্ষিতে সেখানে কিছু ঘটনা ঘটলো। এটা কি জাতির জন্য খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ?’এ ঘটনার আলোচনা নিয়েও হতাশা প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সেটি (পরীমনি ইস্যু) নিয়ে আমি দেখলাম যে যেভাবে সবাই মত্ত হয়ে গেল, সেটি কি জাতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল?’

পরীমনির ঘটনায় সং’সদেও আলোচনা হয়েছে। বি’ষয়টি নজরে আনা হলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই বি’ষয়টি নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে বক্তব্য রেখেছেন বিএনপিদলীয় গ্রুপের নেতারা। আমার কাছে মনে হল তার কাছে বেগম খালেদা জিয়ার চেয়েও ওই চিত্রনায়িকা বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে গেছে। তাই এটা নিয়ে তিনি সেখানে বেশ কয়েকদিন বক্তব্য রেখেছেন। ’এসময় দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নিয়েও কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তুলে ধরেন গত ১২ বছরে বদলে যাওয়ার গল্প।‘

একসময় যে দেশের বাজেট নির্ভর করতো প্যারিস কনসোর্টিয়ামের মিটিংয়ের ও’পর, অর্থমন্ত্রীকে ছুটে যেতে হতো প্যারিস কনসোর্টিয়ামের মিটিংয়ে। সেই বাংলাদেশ এখন অন্য দেশকে ঋ’ণ দেয়। ‘ইতোমধ্যে আমরা শ্রীলঙ্কাকে ২০০ মিলিয়ন ডলার ১০ বছর মেয়াদে ঋ’ণ দিয়েছি। অন্যান্য দেশও ঋ’ণ চাচ্ছে। সেখানেও দেয়া হচ্ছে। দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’ আর কোনো দেশ বাংলাদেশ থেকে ঋ’ণ নিতে আগ্রহী জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটা নিয়ে অর্থনৈতিক বিভাগ কাজ করছে। আফ্রিকার দু একটি দেশ আছে। এটা নিয়ে তারা কাজ করছেন। এগুলো যেহেতু এখনও প্রক্রিয়াধীন এটি নিয়ে মনে হয় এখনও বলার সময় আসেনি।’

দেশের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলেও অ’পপ্রচার থেমে নেই বলেও আক্ষেপ করেন মন্ত্রী হাছান মাহমুদ। বিশ্বের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা বাংলাদেশের অগ্রগতিতে পঞ্চমুখ থাকলেও দেশের কিছু গণমাধ্যম উন্নয়নকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টায় লিপ্ত বলেও জানান তিনি। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বাংলাদেশের দু-একটি পত্রিকায় আমরা দেখতে পাই, এ নিয়ে বিশ্লেষণ করা হয়। এই অগ্রগতি কতটুকু তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার চেষ্টা চা’লানো হয়। এই অ’পচেষ্টা আজকে হচ্ছে তা নয়। এই অ’পচেষ্টা গত ১২ বছর, সাড়ে ১২ বছর ধরে হচ্ছে। এ সত্ত্বেও দেশ এগিয়েছে।’ বর্তমান স’রকারের অধীনে গত ১২ বছরে মানুষের জীবন যাত্রা অনেক বদলে গেছে বলেও দাবি তথ্যমন্ত্রীর. সুত্রঃ বিডি ২৪ লাইভ