বাকীতে ফ্রিজ বিক্রয় না করায় ছাত্রদল নেতার বাহিনীর তান্ডব

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জুন 6, 2021 11:59:10 পূর্বাহ্ন
0
16
views

সুমন ভট্টাচার্য, ময়মনসিংহ: বাকীতে ইলেকট্রনিক্স ডিপ ফ্রিজ বিক্রয় না করায়, জেদের বশীভূত হয়ে বাড়িতে হা’মলা, ভা’ঙচুর সহ নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার লু’ট করার অ’ভিযোগ। গত ২ জুন (বুধবার) বাকীতে ডিপ ফ্রিজ না দেওয়াই ক্ষি’প্ত হয়ে ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি শাহরিয়ার আলম সুমন, বিপু, রিমন, জিহাদ উজ্জল, নাহিদ ও দলবল সহ রাহাতের নিজ বাড়িতে হা’মলা- ভা’ঙচুর করে, নগদ অর্থসহ দামি স্বর্ণ অলংকার লু’ট করে নিয়ে যায় মর্মে থানায় একটি মা’মলা করেন রাহাত আহমেদ।

ময়মনসিংহ নগরীর সদর থানার চরপাড়া ১৪ নং ওয়ার্ডের প্রাইমারি স্কুলের পাশে ৩ তলা ভবনে মৃ’ত- আব্দুল মিয়ার ছেলে রাহাত আহমেদ (৪০), সপরিবারে বসবাস করেন। পেশায় তিনি একজন ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী। চরপাড়া মোড়ে নিজের একটি ইলেকট্রনিক্স দোকান আছে।

মা’মলার এজাহারে উল্লেখ আছে যে,ঘটনার ২০/২৫ দিন পূর্বে বিপু, রিমন, জিহাদ, উজ্জল, নাহিদ তার দলবল নিয়ে রাহাতের দোকানে ইলেকট্রনিক্স পন‍্য কিনতে এসে বাকীতে একটি ডিপ ফ্রিজ কিনতে চাওয়ায় বাকী দিত অস্বীকৃতি জানায় রাহাত। যার জেরে ক্ষি’প্ত হয়ে গা’লিগা’লাজ করে, তরে দেখ‍্যা লইবাম বলে হু’মকি দিয়ে চলে যায়।

রাহাত পরিবার মা’মলায় অ’ভিযোগ করেছেন, সি.কে ঘোষ রোডস্থ (ছায়াবাণী হল)-এর বাসীন্দা বিপু (৩৬), পিতা -মৃ’ত নুরুল ইসলামের ছেলের হুকুমে রিমন(২০), জিহাদ (১৮), নাঈম (১৮), উজ্জল (১৮), নাহিদ (১৯), সুমন (১৯) সঞ্চয় (১৯) ইয়াছিন(২৩) ও দলবল দাউ, চা’পাতি, লো’হার র’ড ও দেশীয় অ’স্ত্র নিয়ে অ’র্তকিত ভাবে বাসায় ঢুকে রাহাত কে খুঁজতে ও অকথ্য ভাষায় গা’লিগা’লাজ দিতে থাকে।

সে বাড়িতে না থাকায় তার মা ছলেমা খাতুন (৫৭) ও ভাই ফরহাদ আহমেদ এগিয়ে আসেলে রিমন তার হাতে থাকা র’ড দিয়ে আ’ঘাত করলে হাত ভে’ঙ্গে যায় এবং গ’লায় থাকা ৭৫ হাজার টাকা মূল‍্যের স্বর্ণের চেইন ছি’নিয়ে নেয়।

মায়ের উপর হা’মলার প্র’তিবাদে তার ছোট ভাই এগিয়ে আসলে তাকেও চা’পাতি, দাউ ও র’ড দিয়ে মে’রে মা’রাত্মক জ’খম করে ঘরের সুপকেচের ডয়ার ভেঙ্গে নগদ ২১ হাজার টাকা ও ৩৫ হাজার মূল্যের স্বর্ণের কানের দুল নিয়ে পা’লিয়ে যায় বিপু বাহিনী।

পরিবারের লোকজনের চি’ৎকারে আশপাশের লোকজন মা’রাত্মক জ’খম অবস্থায় তাদেরকে ময়মনসিং মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এবি’ষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান,গত কাল একটি অ’ভিযোগের ভিত্তিতে মা’মলা রেকর্ড হয়েছে। আ’সামিদের গ্রে’প্তার করতে অ’ভিযান অব্যাহত আছে। অ’পরাধী যেই হোক কোনো ছাড় নয়।

রাহাত ও তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশ প্রশাসনের কাছে এ ধরনের ন্যক্কারজনক সুপরিকল্পিত হ’’ত্যাচেষ্টা, লু’টপাট ও ভা’ঙচুরের সুষ্ঠু বিচার দাবি করার পাশাপাশি নগদ অর্থ অলংকারাদির ক্ষ’তিপূরণ দাবি করেছেন।