বোরকা নি’ষিদ্ধের অনুমোদন দিল শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 28, 2021 02:23:34 অপরাহ্ন
0
12
views

শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভা জনপরিসরে মুখ ঢেকে রাখা বোরকা পরায় নি’ষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে। এই নি’ষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থী হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের এক বিশেষজ্ঞ। মঙ্গলবার সাপ্তাহিক সভায় জননিরাপত্তা বি’ষয়ক মন্ত্রী সারাথ ভিরাসেকারার উত্থাপিত এই প্রস্তাবের অনুমোদন দেয় ক্যাবিনেট। নিজের ফেসবুক পেজে এই তথ্য জানান ভিরাসেকারা। প্রস্তাবটি এখন অ্যাটর্নি জেনারেলের বিভাগে পাঠানো হবে এবং আইন হিসেবে পাস হতে সং’সদে অনুমোদিত হতে হবে।

সং’সদে আইনটি সহজেই পাস হবে বলে মনে করা হচ্ছে, কারণ সং’সদের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনের দ’খল রয়েছে স’রকারের। মু’সলিম নারীদের ধর্মীয় পোশাক বোরকাকে ভিরাসেকেরা ‘ধর্মীয় চ’রমপন্থার পরিচায়ক’ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, এই নি’ষেধাজ্ঞার ফলে জাতীয় নিরাপত্তা উন্নত হবে। ২০১৯ সালে শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডেতে আত্মঘাতি বো’মা হা’মলায় ২৬০ জন নি’হত হওয়ার পর বোরকা সাময়িকভাবে নি’ষিদ্ধ করে দিয়েছিল স’রকার।

স’ন্ত্রাসী সংগঠন আইএস এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় দুটি সংগঠনকে এই হা’মলার জন্য দায়ী করা হয়। গত মাসে, শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূত সাদ খাত্তাক টুইটারে বলেন, এই নি’ষিদ্ধকরণ মু’সলিম’দের অনুভূতিতে আ’ঘাত করবে। জাতিসংঘের ধর্ম ও বিশ্বাসের স্বাধীনতা বি’ষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি আহমেদ শাহেদ এক টুইটার পোস্টে বলেছেন, এই নি’ষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক আইন এবং ধর্মীয় মত প্রকাশের অধিকারের সঙ্গে সামঞ্জস্য নয়।

প্রায় ২ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশ শ্রীলঙ্কায় ৯ শতাংশ জনগোষ্ঠী মু’সলিম। বৌদ্ধ জনগোষ্ঠীর পরিমাণ ৭০ শতাংশ। ক্ষুদ্র জাতিসত্তার জনগোষ্ঠী তামিল রয়েছে ১৫ শতাংশ। এদের অন্ধিকাংশই হিন্দু। সুত্রঃ জাগো নিউজ