হে’ফাজতের নতুন আ’হ্বায়ক ক’মিটিতে যু’ক্ত হলো আরো দুই মু’খ

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 26, 2021 09:15:26 পূর্বাহ্ন
0
31
views

রাজনীতি: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ৩ সদস্য বি’শিষ্ট নতুন আ’হ্বায়ক কমিটি ঘো’ষণা করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে আরো দুই নেতাকে যু’ক্ত করা হয়েছে। নতুন দুইজন হলেন, আল্লামা সালাউদ্দিন নানুপুরী ও অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী। হেফাজতের নতুন আহ্বায়ক কমিটির প্রধান উ’পদেষ্টা হলেন আল্লামা মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী, আহ্বায়ক জুনায়েদ বাবুনগরী ও সদস্য স’চিব নুরুল ইসলাম জিহাদী।

রবিবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে হেফাজতের সাবেক কমিটির এক শী’র্ষ নে’তা ৩ সদস্যের আ’হ্বায়ক কমিটির কথা জানান। এই কমিটি ঘো’ষণার কয়েক ঘণ্টা পর রাত পৌনে ৪টার দিকে সদ্যঘো’ষিত হে’ফাজতের আ’হ্বায়ক কমিটির সদস্য স’চিব আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী তার ফেসবুক পেজে এসে এক ভিডিও বার্তায় পূর্বোল্লিখিত আহ্বায়ক কমিটিতে নতুন দুই সদস্য আল্লামা সালাউদ্দিন নানুপুরী ও অ’ধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরীর নাম ঘো’ষণা করেন।

তিনি বলেন, ‘চলমান অ’স্থির ও না’জুক পরিস্থিতি বিবেচনায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ও মহানগর কমিটি বি’লুপ্তি ঘো’ষণা পরবর্তী উপদেষ্টা কমিটির পরামর্শক্রমে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘো’ষণা করা হলো। এই আহ্বায়কগণ অতি দ্রুত হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবেন।’

এর আগে রবিবার রাত ১১টার দিকে ফেসবুক লাইভে এসে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। ভিডিওবার্তায় বাবুনগরী বলেন, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে বড় অরাজনৈতিক সংগঠন, ঈমানি-আকিদার সংগঠন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হলো। হেফাজতে ইসলামের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের পরামর্শক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ১৯ জানুয়ারি চট্টগ্রাম থেকে হেফাজতের যাত্রা শুরু। চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসার তৎকালীন মহাপরিচালক শাহ আহম’দ শফী সংগঠনটির প্রতিষ্ঠা করেন। ২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর মা’রা যাওয়ার আগ পর্যন্ত তিনিই সংগঠনের আমিরের দায়িত্ব পালন করেন।

আহম’দ শফীর মৃ’ত্যুর পর ওই বছরের ১৫ নভেম্বর জুনায়েদ বাবুনগরীকে আমির ও নূর হোসাইন কাসেমীকে মহাস’চিব করে কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হয়। পরের মাস ডিসেম্বরের ১৩ তারিখে নূর হোসাইন কাসেমী মা’রা গেলে নায়েবে আমির নূরুল ইসলাম জিহাদীকে ভারপ্রাপ্ত মহাস’চিবের দায়িত্ব দেয়া হয়।