শা’শুড়ির স’হযোগিতায় পু’ত্রব’ধূকে ধ”ণ, হ’’ত্যার পর লা’শ গু’মের চে’ষ্টা!

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 24, 2021 10:11:39 পূর্বাহ্ন
0
15
views
প্রতীকী

সারাদেশ: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে গৃ’হবধূ আজমিনা আক্তার হ’’ত্যাকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। প’রকীয়া সম্পর্কের জেরেই ঘটেছে এই হ’’ত্যাকাণ্ড। জানা গেছে, হ’’ত্যাকাণ্ডের প্রধান আ’সামি গোলাপ মিয়ার সঙ্গে পুত্রবধূর সম্পর্ক তৈরিতে সহযোগিতা করতেন নি’হত আজমিনার শাশুড়ি! ছেলে কৃষক শাহনুর মিয়া কৃষি শ্র’মিক হিসাবে বাহিরে কাজ করতে গেলে গোলাপ মিয়াকে বাড়িতে ডেকে আনতেন আজমিনার শাশুড়ি হেলেনা বেগম।

গেল মঙ্গলবার রাতে হেলেনা বেগমের সহযোগিতায় ধ”ণের শি’কার হন আজমিনা। এতে ক্ষি’প্ত হয়ে ধ’র্ষক গোলাপকে জুতাপেটা করেন আজমিনা। ক্ষি’প্ত হয়ে আজমিনার মাথায় টিউবওয়েলের হাতল দিয়ে আ’ঘাত করে গোলাপ। ঘটনাস্থলেই আজমিনার মৃ’ত্যু হয়। এসময় সাহরির সময় ঘনিয়ে এলে ম’রদেহ গু’মের চেষ্টার পর ব্যর্থ হয়ে গোলাপ ও তার সহযোগীরা। পরে শাশুড়ি হেলেনার সহযোগিতায় রাতেই বাড়ির পাশে খড়কুটো দিয়ে আজমিনার ম’রদেহ ফে’লে রেখে চলে যায় গোলাপ ও তার সঙ্গে থাকা অন্য সহযোগীরা।

আজমিনা হ’’ত্যা র’হস্য উদঘাটনের পর শুক্রবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেন মা’মলার ত’দন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যা’ব-৯ সিলেট সিপিসি ৩ সুনামগঞ্জ ক্যাম্পের উপ-পরিচালক লে. কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ। গত বুধবার সকালে উপজে’লার বাদাঘাট ইউনিয়নের জামবাগ জৈতাপুর গ্রামের কৃষক শাহনুর মিয়ার স্ত্রী আজমিনার র’ক্তাক্ত ম’রদেহ খড়কুটো দিয়ে ঢাকা রাখা অবস্থায় উ’দ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নি’হতের শ্বশুর আমির হোসেন আমিরুল কয়েকজনকে অ’জ্ঞাতনামা আ’সামি করে বুধবার রাতে থানায় একটি হ’’ত্যা মা’মলা করেন। তার একদিন পরেই তথ্য-প্রমাণাদির সাপেক্ষে আজমিনার শাশুড়িসহ তিন আ’সামিকে গ্রে’প্তার করে র‌্যা’ব।

গ্রে’প্তারকৃতরা হলেন- হ’’ত্যাকাণ্ডের প্রধান আ’সামি উপজে’লার বাদাঘাট ইউনিয়নের জামাবাগ জৈতাপুর গ্রামের মৃ’ত নাজির হোসেনের ছেলে গোলাপ মিয়া, তার সহযোগী একই গ্রামের আকরম আলীর ছেলে সোহাগ মিয়া ও নি’হত গৃ’হবধূর শাশুড়ি হেলেনা বেগম। শুক্রবার তাদের তাহিরপুর থানায় সোপর্দ করেছে র‌্যা’ব। শুক্রবার সন্ধ্যায় লে. কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ বলেন, হ’’ত্যাকাণ্ডের প্রধান আ’সামি গোলাপ গ্রামের প্রভাবশালী ও লা’ঠিয়াল। দারিদ্র্যতার সুযোগ নিয়ে আজমিনার শাশুড়িকে টাকা-পয়সার লোভ দেখিয়ে এই সম্পর্ক তৈরি করে। শাশুড়ির সহযোগিতায় ইতোপূর্বে কয়েকবার দুই শি’শু স’ন্তানের জননী আজমিনাকে ধ”ণ করে গোলাপ। মঙ্গলবার আজমিনাকে হ’’ত্যার পর ম’রদেহ গু’মের ঘটনায় সরাসরি সহযোগিতা করেন আ’সামি হেলেনা বেগম, গোলাপের সহযোগী সোহাগ মিয়াসহ আরও কয়েকজন।

তিনি আরও বলেন, আ’সামিদের জি’জ্ঞাসাবাদে জানা গেছে এর আগেও ওই শাশুড়ি টাকা পয়সা খেয়ে বিভিন্ন মেয়েকে ভোগের সুযোগ তৈরি করে দেয় গোলাপকে। তাহিরপুর থানার ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, হ’’ত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত আলামত জ’ব্দ করা হয়েছে। অন্য আ’সামিদের গ্রে’প্তারে পুলিশ ও র‌্যা’ব চেষ্টা চা’লিয়ে যাচ্ছেন।