হেফাজত নেতাদের জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে এল মামুনুলকাণ্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 16, 2021 12:34:00 অপরাহ্ন
0
55
views

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাস’চিব মামুনুল হকের নৈতিক স্খলনের বি’ষয়টি স্বীকার করে হতাশা ব্যক্ত করেছেন সংগঠনটির শীর্ষ নেতারা। তাকে ব’হিষ্কারের প্রস্তাবও করেছিল একটি অংশ। তবে সংগঠনটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরী সেই প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন। গ্রে’ফতার হওয়া হেফাজত নেতাদের জি’জ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে এমন তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। এ ছাড়া হেফাজতের সাম্প্রতিক তা’ণ্ডবে জামায়াত-শিবিরসহ জ’ঙ্গিদের সম্পৃক্ততাও পাওয়া গেছে বলে জানায় পুলিশ।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবা’দীকে রোববার (১১ এপ্রিল) গ্রে’ফতার করে পুলিশ। এ ছাড়া এখন পর্যন্ত গ্রে’ফতার করা হয়েছে হেফাজতের সহকারী মহাস’চিব মুফতি শাখাওয়াত হোসাইন রাজী, সাবেক প্রচার সম্পাদক মুফতি ফখরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি মাওলানা মঞ্জরুল ইসলাম আফেন্দি এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সহপ্রচার সম্পাদক মুফতি শরিফ উল্লাহকে।

মামুনুল হকের রিসোর্টকাণ্ডের পর গত রোববার হাটহাজারী মাদ্রাসায় জরুরি বৈঠকে বসেন কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। বৈঠকে মামুনুল হকের নৈতিক স্খলনের বি’ষয়টি স্বীকার করে হতাশা ব্যক্ত করেন সংগঠনটির শীর্ষ নেতারা। সংগঠন থেকে তাকে ব’হিষ্কারের প্রস্তাব দেন আজিজুল হক ইসলামাবা’দী। প্রস্তাবটি নাকচ করে দেন সংগঠনটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরী। এই মুহূর্তে ব’হিষ্কার করা হলে তিনি গ্রে’ফতার হতে পারেন। ফলে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসা হয়। মামুনুলের গ্রে’ফতার এড়াতে মাদ্রাসা খোলা রাখারও সিদ্ধান্ত হয়।

রিসোর্টকাণ্ড ত’দন্তে তিন সদস্যের কমিটি করা হয়। কমিটিতে রাখা হয় হেফাজতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা হাফেজ তাজুল ইসলাম, সহকারী মহাস’চিব শাখাওয়াত হোসাইন রাজী এবং হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক ড. মাওলানা নুরুল আফসার আজহারীকে।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর গো’য়েন্দা পুলিশের কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, মামুনুলের বি’ষয়ে হেফাজত হতাশ। তবে হেফাজতের সঙ্গে আরও অনেকেই জ’ড়িত।

শুধু হেফাজত নয়, সাম্প্রতিক সহিং’সতায় জামায়াতসহ জ’ঙ্গিদেরও সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে দাবি পুলিশের।বর্তমান প্রজন্মের স্বপ্নকে ধ্বং’স করার জন্য হেফাজতের কর্মকাণ্ডকে যথেষ্ট বলে মনে করে পুলিশ।