শা’রীরিক স’ম্পর্কে জো’র ক’রায় হা’ত-পা বেঁ’ধে স্বা’মীকে হ’’ত্যা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 16, 2021 11:06:26 পূর্বাহ্ন
0
64
views

সারাদেশ: বিয়ের ২৭ দিনের মাথায় রাজশাহীর মোহনপুরে যৌ’ন নি’পীড়নের শি’কার কি’শোরী স্ত্রীর হাতে খু’ন হয়েছেন স্বামী হারুনুর রশিদ (১৮)। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) দিবাগত রাতে উপজে’লার বি’ষহরা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ গৃ’হবধূকে গ্রে’প্তার করেছে। তার বি’রুদ্ধে থানায় একটি হ’’ত্যা মা’মলা হয়েছে। নি’হত যুবক হারুনুর রশিদ ওই গ্রামের বয়জুল মণ্ডলের ছেলে।

গ্রে’প্তার গৃ’হবধূ বাবার বাড়ি একই উপজে’লার ভীমনগর পালশা গ্রামে। ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ দিন আগে পারিবারিকভাবেই হারুনুর রশিদের সাথে বিয়ে বাল্য বিয়ে হয় ভীমনগর পালশা গ্রামের মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ওই নববধূর। পুলিশের জি’জ্ঞাসাবাদে সে তার স্বামীকে হ’’ত্যার কথা স্বীকার করেছে। গত ১৯ মার্চ হারুনের সাথে তার বিয়ে দেয়া হয়। বয়স কম বলে ওই কি’শোরীর খালার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় একজন কাজী এই বিয়ে পড়ান। মোহনপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নি’হত হারুনের লা’শ পুলিশ ম’য়নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে পাঠায়।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৌহিদুর রহমান বলেন, অনেকটা জো’র করেই তার বিয়ে দেয়া হয়েছিল নববধূর। বিয়ের পর স্বামীর যৌ’ন চাহিদা পূরণ করতে গিয়ে অ’সুস্থ হয়ে পড়ে সে। গত মঙ্গলবার রাতেও স্বামী তার সঙ্গে শা’রীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চান। তখন মেয়েটি জানায়, তার শা’রীরিক স’মস্যার কথা। তখন স্ত্রীর গায়ে হাত তোলেন হারুন। পরে গৃ’হবধূ কৌশলে স্বামীর দুই হাত বেঁ’ধে ফে’লে। এরপর পাটের রশি গ’লায় পেঁ’চিয়ে ধরে। আর এতেই দ্রুত তার স্বামীর মৃ’ত্যু হয়।

ওসি তৌহিদুর রহমান আরও বলেন, স্বামীর হাতে যৌ’ন নি’পীড়নের শি’কার হয়েই এ হ’’ত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বাল্যবিয়ের শি’কার ওই নববধূ। মেয়েটির চেয়ে ছেলের শা’রীরিক গঠন দ্বিগুণ। তারপরও সে স্বামীকে হ’’ত্যা করতে পেরেছে বলে স্বী’কারোক্তি দিয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে আ’দালতে তোলা হলে সে স্বী’কারোক্তিমূলক জ’বানব’ন্দিও দিয়েছে। পরে আ’দালত তাকে কা’রাগারে পাঠিয়েছেন। এর আগে নি’হত হারুনের বাবা মেয়েটির বি’রুদ্ধে হ’’ত্যা মা’মলা করেন বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।