গ’র্ভপাতের পর বিয়ে করতে রা’জি নন ছা’ত্রলীগ নে’তা, আ’দালতে মা’মলা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 9, 2021 09:49:48 পূর্বাহ্ন
0
15
views

আইন ও বিচার: কি’শোরগঞ্জ জে’লা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফর রহমান নয়নের বি’রুদ্ধে ধ”ণ ও গ’র্ভপাত করানোর অ’ভিযোগে আ’দালতে মা’মলা করেছেন এক ত’রুণী। রবিবার (৪ এপ্রিল) এ ঘটনায় ভু’ক্তভোগী ত’রুণী আ’দালতে একটি মা’মলা করেছেন। ভু’ক্তভোগী ত’রুণী ঢাকার একটি বেস’রকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক সিনিয়র জে’লা ও দায়রা জজ কিরণ শংকর হালদার অ’ভিযোগটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)কে ত’দন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন। যার প্রতিবেদন আগামী ২৯শে এপ্রিলের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মা’মলার অ’ভিযোগে বলা হয়, লুৎফর রহমান নয়নের সঙ্গে কি’শোরগঞ্জের গুরুদয়াল স’রকারি কলেজ ক্যাম্পাসে ওই ত’রুণীর পরিচয় হয়। পরিচয় থেকে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর থেকে নয়নের আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবের বাসায় বেড়াতে যেতেন ত’রুণী।

এ সুবাদে গত বছরের ২০শে অক্টোবর রাত ৮টার দিকে লুৎফর রহমান নয়ন শহরের গাইটাল এলাকায় জুয়েল রানা নামে তার এক বন্ধুর বাসায় ত’রুণীকে নিয়ে যান। ওই বাসায় গিয়ে ত’রুণী দেখেন, জুয়েল রানার স্ত্রী বাসায় নেই। তখন জুয়েল রানার সঙ্গে সেলিম নামের আরেকজন অবস্থান করছেন। তারা দুজন নয়ন ও ত’রুণীকে বাসার ভেতরের কক্ষে যাওয়ার কথা বললে তারা সেখানে যান। ভেতরের কক্ষে যাওয়ার পর নয়ন দরজা বন্ধ করে দিলে ত’রুণী আপত্তি জানান। পরে কথোপকথনের এক পর্যায়ে রাত ৯টার দিকে নয়ন ত’রুণীকে মৃ’ত্যুর ভ’য় দেখিয়ে ধ”ণ করেন।

এসময় ভু’ক্তভোগী ত’রুণী কা’ন্নাকাটি করলে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন লুৎফর। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে ত’রুণী অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ার বি’ষয়টি জানতে পেরে তাকে জানান। শুনে লুৎফর বলেন, গর্ভের স’ন্তান ন’ষ্ট করলে এক সপ্তাহের মধ্যে বিয়ে করবেন। এই প্রতিশ্রুতিতে রাজি হলে লুৎফর তাকে ট্যাবলেট খাইয়ে গ’র্ভপাত করান। এরপরে বিয়ের কথা বললে বি’ষয়টি এড়িয়ে যান লুৎফর।

এ ব্যাপারে জে’লা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফর রহমান নয়ন জানান, ওই ত’রুণীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা দূরে থাক তার তেমন জানাশোনাই নেই। তাই অ’ভিযোগের বি’ষয়টি কাল্পনিক ও অবান্তর। এদিকে কি’শোরগঞ্জের পিবিআই পুলিশ সুপার মো. শাহাদাত হোসেন পিপিএম এ ব্যাপারে জানান, ট্রাইব্যুনাল থেকে তারা আদেশের কপি পেয়েছেন। পিবিআইয়ের এসআই জিয়া উদ্দিনকে বি’ষয়টির ত’দন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।