ফোনালাপ ফাঁস : মিথ্যে বলতে প্রথম স্ত্রীকে যা শিখিয়ে দিয়েছিলেন মামুনুল হক

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : এপ্রিল 3, 2021 10:43:24 অপরাহ্ন
0
37
views

হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাস’চিব ও ঢাকা মহানগরীর মহাস’চিব মাওলানা মামুনুল হক আজ শনিবার (৩ মার্চ) এক নারীকে নিয়ে সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টের ৫০১ নম্বর কক্ষে ওঠেন। বি’ষয়টি এলাকায় জানাজানি হওয়ার পর উত্তেজিত জনতা রিসোর্টে ঢুকে ওই নারী সঙ্গীসহ তাকে অ’বরু’দ্ধ করে। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে মামুনুল হককে উ’দ্ধার করে।

স্থানীয় লোকজনের হাতে আ’টক হওয়ার পর স্ত্রীকে ফোন করেছিলেন হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাস’চিব ও ঢাকা মহানগরীর মহাস’চিব মাওলানা মামুনুল হক। তার এই ফোনালাপ ফাঁ’স হওয়ার পর অডিওটি সংগ্রহ করেছে বাংলা ট্রিবিউন।

ফোনালাপে রিসোর্টের ওই নারীকে জনৈক শহীদুল ইসলাম ভাইয়ের স্ত্রী সম্বোধন করেন মামুনুল।

মামুনুল হক ফোনালাপে তার স্ত্রীকে ওই নারীর পরিচয় হিসেবে শহীদুল ইসলাম নামে কোনও এক ব্যক্তির স্ত্রী বলে জানান। বাসায় গিয়ে পুরো বি’ষয়টি ব্যাখ্যা করার জন্য স্ত্রীকে আগে থেকেই ‘সব জানি বলে’ মি’থ্যা কথা বলার পরামর্শ দেন।

মামুনুলের ফোনালাপ:

মামুনুল হকের স্ত্রী: আসসালামু আলাইকুম

মামুনুল হক: ওলাইকুম সালাম ওয়া রহমতুল্লাহ। পুরা বি’ষয়টা আমি তোমাকে সামনে আইসা বলবো। ওই মহিলা যে ছিল সাথে সে হইলো আমগো শহীদুল ইসলাম ভাইয়ের ওয়াইফ। বুঝছো? ওইটা নিয়া এমন একটা মানে অবস্থা এরকম তৈরি হইয়া গেছে যে এই কথা বললে তারা ওখানে মানে ই কইরা ফেলছিল আমাকে।

মামুনুল হকের স্ত্রী: আচ্ছা, বাসায় আসেন, তারপর যা বলার তারপর বইলেন।

মামুনুল হক: বলুম তো। তুমি বি’ষয়টা মানে অন্যান্য কথা বলতে হইবো, পরিস্থিতিটা এমন হইয়া গেছে। এখন এই জন্য তুমি আবার মাঝখান দিয়া অন্য কিছু মনে কইরো না। তোমাকে কেউ জিজ্ঞেস করলে তুমি বইলো হ্যাঁ আমি সব জানি। এইরকম কিছু একটা বইলো।

মামুনুল হকের স্ত্রী: ঠিক আছে।

মামুনুল হক: আচ্ছা। আসসালামু আলাইকুম।

প্রসঙ্গত, রিসোর্টে অ’বরুদ্ধ হওয়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে হেফাজতের নেতাকর্মীরা রয়েল রিসোর্টে গিয়ে ভা’ঙচুর চা’লায়। পরে হেফাজতের নেতাকর্মীরা তাকে ওই রিসোর্ট থেকে ছি’নিয়ে নিয়ে যায়।

সোনারগাঁও থানার ওসি (ত’দন্ত) তবিদ রহমান জানান, হেফাজতের নেতাকর্মীরা এসে হ’ট্টগোল শুরু করলে মামুনুল হককে তারা ছেড়ে দেন। পরে হে’ফাজতের নেতাকর্মীরা মামুনুল হক ও তার নারী স’ঙ্গীকে নিয়ে চলে যায়।

আ’টকের পর মামুনুল হক দা’বি করেন, সঙ্গে থাকা ওই না’রী তার দ্বিতীয় স্ত্রী। তার নাম আমেনা তৈয়াবা। ইসলামি শরীয়ত মোতাবেক ওই না’রীকে তিনি বিয়ে করেছেন। সূত্রঃ বাংলা ট্রিবিউন