এক বছর যাবৎ স্বা’মীকে অন্য না’রীর স’ঙ্গে দৈ’হিক স’ম্পর্কের সুযোগ করে দিলেন অ’ন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : মার্চ 22, 2021 10:54:14 অপরাহ্ন
0
52
views

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে এক প্র’বাসীর স্ত্রী’র ন”গ্ন ভিডিও ধারণ করেন আলা উদ্দিন চাঁদ নামে এক যু’বক। সেই ভিডিও ছ’ড়িয়ে দেওয়ার হু’ম’কি দিয়ে এক বছর যাবৎ তাকে ধ”ণ করছেন আলা উদ্দিন। অ’ভিযুক্ত আলা উদ্দিন চাঁদ উপজে’লার ঢালুয়া ইউনিয়নের কিনারা গ্রামের আলী আক্কাছের ছে’লে।

ভু’ক্তভো’গী না’রীর স্বজনেরা জানান, স্বা’মীর এক আত্মীয়ের মাধ্যমে ওই না’রীর পরিচয় হয় ব্যবসায়ী আলা উদ্দিন চাঁদের সঙ্গে। পরে তার দোকান থেকে দালান ঘরের জন্য টাইলস, রং ও সেনিটারি মালামাল ক্রয় করে ওই না’রী। এ সম্পর্কের সূত্র ধরে আলা উদ্দিন তার স্ত্রী’কে দিয়ে ওই প্র’বাসীর স্ত্রী’র সঙ্গে স’ম্পর্ক তৈরি করান এবং তার কাছ থেকে কিছু টাকা ধার নেওয়ান।

একপর্যায়ে ওই না’রী ভিডিও কলে কথা বললে তার টাকা ফেরত দেবেন বলে জানান আলা উদ্দিন। বা’ধ্য হয়ে ভিডিও কলে কথা বলেন প্র’বাসীর স্ত্রী। কিছুদিন পর ভিডিও কলে ন”গ্ন না হলে টাকা ফেরত দেবেন না বলে শর্ত দেন আলা উদ্দিন। সেই শর্ত পালনের সময় ভিডিও ধারণ করে রাখেন তিনি।

এর পর থেকে ওই ভিডিও স্বা’মী-দে’বরসহ অন্যদের কাছে পাঠানোর হু’ম’কি দিয়ে এক বছর ধরে প্র’বাসীর স্ত্রী’কে ধ”ণ করেন আলা উদ্দিন। এ সময়ে তিনি ভু’ক্তভো’গী না’রীর কাছ থেকে ছয় লাখ টাকা হা’তিয়ে নেন বলেও অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই প্র’বাসীর স্ত্রী ছাড়াও আরো একাধিক না’রীকে ধ”ণ ও তাদের গো’পন ভিডিও ধারণের অ’ভিযোগ রয়েছে আলা উদ্দিন চাঁদের বি’রুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিনারা গ্রামের এক বৃ’দ্ধ জানান, তার বি’রুদ্ধে অনেক না’রীকে ধ”ণ ও প্র’তারণার অ’ভিযোগে গ্রামবাসী অসংখ্যবার সালিস বৈঠক করেছে। কিন্তু সে কাউকে পরোয়া করে না। হা’মলা ও অ’পমানের ভ’য়ে তার বি’রু’দ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।

ভু’ক্তভো’গী না’রী বলেন, আলা উদ্দিন চাঁদ ও তার স্ত্রী আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে আমার ন”গ্ন ভিডিও ধারণ করে। পরে ওই ভিডিও আমার স্বা’মী, আত্মীয়দের এবং অনলাইনে ছ’ড়িয়ে দেওয়ার হু’ম’কি দিয়ে আমাকে এক বছর যাবৎ ধ”ণ করে। তারা আমার কাছ থেকে প্রায় ছয় লাখ টাকা হা’তিয়ে নিয়েছে। পরে সে আমার কাছে আরো টাকা দাবি করে, আমি টাকা দিতে অ’স্বীকৃতি জানালে সে ওই ভিডিওগুলো আমার দে’বরের কাছে পাঠিয়ে দেয়। আমি আলা উদ্দিন চাঁদ ও তার স্ত্রী’র বি’চার দা’বি করছি।

এ ব্যাপারে অ’ভিযুক্ত আলা উদ্দিন চাঁদের স্ত্রী বলেন, ‘আমি আমার স্বা’মীর প্রেমে পড়ে খুব খা’রাপ কাজ করে ফে’লেছি। যেহেতু আমি স’ন্তানসম্ভবা ছিলাম তাই বাইরে কোথাও গিয়ে সম্মান ন’ষ্ট করতে পারে, এমন চিন্তা থেকেই আমার স্বা’মীকে আমাদের বাড়িতে ওই না’রীর স’ঙ্গে দৈ’হিক স’ম্পর্কের সুযোগ করে দিয়েছি’।

ধ”ণ ও প্র’তারণায় অ’ভিযুক্ত আলা উদ্দিন চাঁদ নিজেকে নাঙ্গলকোট উপজে’লা আওয়ামী যুবলীগ সদস্য ও ইউপি মেম্বার পদে প্রার্থী দা’বি করে বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আমার কিছু প্রতিপক্ষ আমার বি’রু’দ্ধে এ ধরনের অ’পপ্রচার চালাচ্ছে। তার স্ত্রী’র বক্তব্যের বি’ষয়ে আলা উদ্দিন চাঁদ বলেন, ‘আমার স্ত্রী কেন এসব কথা বলেছে আমি জানি না’।

ঢালুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নাজমুল হাছান ভূঁইয়া বাছির বলেন, অ’প’রাধীর অ’প’রাধ প্রমাণসাপেক্ষে উপযুক্ত শা’স্তি হওয়া দরকার, আর কেউ যেন এমন অ’পরাধ করার সাহস না পায়।

নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, এ ব্যাপারে কোনো অ’ভিযোগ পাইনি। অ’ভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সূত্রঃ কালের কণ্ঠ