নি’খোঁ’জ গৃ’হবধূ’র বি’বস্ত্র লা’শ মি’ললো আখক্ষে’তে

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারী 24, 2021 11:34:02 অপরাহ্ন
0
62
views

সারাদেশঃ চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজে’লায় নি’খোঁজ এক গৃ’হবধূর ক্ষ’তবিক্ষ’ত ও বি’বস্ত্র ম’রদেহ উ’দ্ধার করেছে পুলিশ। নিখোঁজের তিন দিন পর বুধবার রাতে উপজে’লার উথলী মোল্লাবাড়ি এলাকার আখক্ষেত থেকে ওই গৃ’হবধূর ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়। ওই নারীর ম’রদেহে একাধিক ধা’রালো অ’স্ত্রের কো’পের চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ। নি’হত গৃ’হবধূর নাম তানজিরা খাতুন (২৫)। তিনি উপজে’লার সিংনগর গ্রামের আবদুস সালামের স্ত্রী।

এর আগে সোমবার সকালে তানজিরা ও তার স্বামী মাঠে জ্বা’লানি সংগ্রহ করতে গিয়ে নিখোঁজ হন। স্ত্রীর ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হলেও স্বামী এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। স্ত্রী তানজিরা খাতুনকে স্বামী আবদুস সালামই হ’’ত্যা করে গাঢাকা দিয়েছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। এলাকাসূত্রে জানা গেছে, জীবননগর উপজে’লার সিংনগরের আবদুস সালাম মাস তিনেক ধরে স্ত্রীসহ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজে’লার আকন্দবাড়িয়া আবাসনে বসবাস করে আসছিলেন। ওই আবাসনের পাঁচ নম্বর ব্যারাকের পাঁচ নম্বর কক্ষে তারা থাকতেন।

সোমবার সকাল ৯টার দিকে জ্বা’লানি সংগ্রহের জন্য মাঠের উদ্দেশে বের হন তারা। ঘরে রেখে যান তাদের দুই শি’শুকন্যা সাবিনা খাতুন (৫) ও আলিয়া খাতুনকে (৩)। সন্ধ্যা পর্যন্ত বাবা-মা না ফিরলে দুই শি’শুকন্যাকে এলাকার লোকজন তাদের দাদির কাছে সিংনগর গ্রামে রেখে আসেন। বুধবার সন্ধ্যায় উপজে’লার উথলী গ্রামের মোল্লাবাড়ি বাসস্ট্যান্ডের পাশে কোমরপাড়া নির্জন মাঠের একটি আখক্ষেতে তানজিরা খাতুনের বি’বস্ত্র ও ক্ষ’তবিক্ষ’ত ম’রদেহ দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। রাতেই ম’রদেহ উ’দ্ধার করে পুলিশ।

আকন্দবাড়িয়া আবাসনে বসবাসকারী আমেনা বেগম জানান, তানজিরার স্বামী আবদুস সালাম তেমন কোনো কাজকর্ম করতেন না। মাঝে মাঝেই স্ত্রীর সঙ্গে ভিক্ষা করতে যেতেন। কোনো কোনো সময় টাকার জন্য স্ত্রী তানজিরা খাতুনকে মা’রপিটও করতেন। সোমবার সকাল ৯টা দিকে স্বামী আবদুস সালাম রান্নার জ্বা’লানি সংগ্রহের জন্য একটা দা হাতে করে স্ত্রীর সঙ্গে বের হয়ে আর ফেরেননি। জীবননগর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, নি’হত তানজিরা খাতুনের মাথায় এবং ঘাড়সহ শরীরের একাধিক স্থানে ধা’রালো অ’স্ত্র দিয়ে কো’পানোর দাগ রয়েছে।

সোমবারের কোনো একসময় এ হ’’ত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্বামী আবদুস সালাম নিজেই স্ত্রীকে কু’পিয়ে হ’’ত্যা করে গাঢাকা দিয়েছেন। চুয়াডাঙ্গা জে’লা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) মো. আবু রাসেল বলেন, এ হ’’ত্যাকাণ্ডের প্রকৃত র’হস্য উদ্ঘাটন এবং ঘা’তককে ধরতে পুলিশের একাধিক দল মাঠে নেমেছে।