মা সৌদি আরবে, এই সুযোগে মেয়েকে অ’শ্লীল ভিডিও দেখিয়ে দিনের পর দিন ধ”ণ বাবার

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারী 19, 2021 11:08:04 পূর্বাহ্ন
0
657
ভিউ

সারাদেশঃ শরীয়তপুরের সদর উপজে’লায় আট বছর বয়সী নিজের মেয়েকে ধ”ণের অ’ভিযোগে মো. ফারুক বেপারী ভোলা (৫৫) নামে একজনকে গ্রে’প্তার করেছে পালং থানা পুলিশ। নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দলমন আইনে (ধ”ণের) অ’ভিযোগ এনে ভি’কটিমের খালা বা’দী হয়ে থানায় মা’মলা করেছেন। গতকাল বুধবার দিনগত রাতে ফারুককে গ্রে’প্তার করে পুলিশ। ফারুক ভোলা জে’লার চর ফ্যাশন থানার চর নিউটন গ্রামের মৃ’ত হারেজ বেপারীর ছেলে।

মা’মলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৫ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক করে ঢাকাতে ওই শি’শুর মায়ের সঙ্গে বিয়ে হয় ফারুক বেপরীর। বিয়ের চার বছর পর তারা শরীয়তপুরে চলে আসে। বিবাহিত জীবনে তাদের এগারো বছরের এক ছেলে ও আট বছরের এক মেয়ে আছে। অভাবের সংসারের হাল ধরতে ওই শি’শুর মা ২০১৮ সালে সৌদি আরব যান। বর্তমানে তিনি সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। সেই সুবাদে মো. ফারুক বেপারী তাদের ছেলে ও মেয়েদের নিয়ে শরীয়তপুর সদর উপজে’লার নীলকান্দি এলাকার হারুন তালুকদারের ভাড়া বাসায় থাকেন।

ওই বাসায় গেলো ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে নিজের আট বছরের মেয়েকে মোবাইল ফোনে অ’শ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ধ”ণ করে। ইতোপূর্বেও ওই শি’শুটিকে অ’শ্লীল ভিডিও দেখিয়ে একাধিক বার ধ”ণ করেছে বলে অ’ভিযোগ রয়েছে। অপরদিকে মেয়েকে ভ’য় দেখিয়ে ঘটনা কাউকে বললে খু’ন করার হু’মকি দেয়। এরপর ১৫ ফেব্রুয়ারি মেয়ে তার খালাকে ধ”ণের ঘটনা খুলে বলে। পরে ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই শি’শুকে নিয়ে ওর খালা দ্রুত পালং মডেল থানায় এসে অ’ভিযোগ করেন। এ ঘটনায় থানায় একটি মা’মলা হয়েছে।

ভি’কটিমের খালা বলেন, ভাগনি ওর বাবার ভ’য়ে এতদিন চুপ ছিল। কাউকে কিছু বলেনি। আমার বাড়িতে আসলে বি’ষয়টি ভাগনি আমাকে খুলে বলে। পরে আমি ভাগনিকে নিয়ে থানায় মা’মলা করেছি। ফারুক ভাগনির সঙ্গে পৈচাশিক কাজ করেছে। ফারুক একজন অমানুষ ওর ফাঁ’সি হওয়া উচিত।

শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, আমরা ভি’কটিমের খালার অ’ভিযোগ এবং সার্বিক বি’ষয় যাচাই-বাছাই করে তার বি’রুদ্ধে মা’মলা নিয়েছি। বুধবার রাতে নিজ মেয়েকে ধ”ণের অ’ভিযোগে ফারুককে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। আজ আ’দালতের মাধ্যমে তাকে কা’রাগারে পাঠানো করেছি এবং ভি’কটিমকেও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শরীয়তপুর ১৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।