শি’ক্ষার্থীদের স্ম’রণশ’ক্তি বা’ড়াতে ই’ঞ্জেকশন, গ্রে’ফতার ত’রুণ শি’ক্ষক

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারী 15, 2021 01:03:49 অপরাহ্ন
0
34
ভিউ
প্রতীকী ছবি

অনলাইন ডেস্কঃ পড়ানোর পাশাপাশি শি’ক্ষার্থীদের স্ম’রণশ’ক্তিরও দেখভাল করতেন শিক্ষক। যা পড়াচ্ছেন, তা যাতে বৃথা না যায়, তার ব্য’বস্থা করতেন নিজে হাতে। শি’ক্ষার্থীদের স্ম’রণশ’ক্তি বাড়াতে তাদের স্যা’লাইনের ই’ঞ্জেকশন দিতেন ওই শি’ক্ষক। ব্যাপারটা ইউটিউবের একটি ভিডিও দেখে শিখেছিলেন তিনি। তারপর তা প্রয়োগ করতে শুরু করেন নিজের ছাত্র-ছাত্রীদের উপরই।

দিল্লির ওই শিক্ষককে রবিবার গ্রেফাতার করেছে দিল্লি পুলিশ। গ্রে’ফতার হওয়া যু’বকের বয়স ২০। তিনি নিজে স্না’তক স্ত’রের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। পূর্ব দিল্লির মা’ন্ডওয়ালিতে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির ছা’ত্রছা’ত্রীদের পড়াতেন বিনামূল্যে। তবে পড়ানোর ফাঁ’কে ছাত্র-ছাত্রীদের গি’নিপিগ বানিয়ে যে এমন পরীক্ষামূলক ‘গবেষণা’ও চালাতেন, তা সামনে এল এক ছাত্রের ই’ঞ্জেকশন সমেত ধরা পড়ার পর।

পুলিশ জানিয়েছে, স’ন্দীপ নামে ওই শি’ক্ষকের এক ছা’ত্রকে বাড়িতে ই’ঞ্জেকশন নিতে দেখেন তার বাবা-মা। এর পরেই পু’লিশকে তারা জানান ঘটনাটি। এরপরই স’ন্দীপকে গ্রে’ফতার করে পুলিশ। পূর্ব দিল্লির ডিএসপি দীপক যাদব জানিয়েছেন, ‘ছা’ত্রদের স্ম’রণশক্তি বাড়াতে তাদের উপর নরমাল স্যা’লাইন স’লিউশনের ই’ঞ্জেকশন প্রয়োগ করত সন্দীপ। তার বি’রুদ্ধে ভারতীয় দ’ণ্ডবিধির ৩৩৬ ধারায় (প্রা’ণ বিপন্ন করা) মা’মলা দা’য়ের হয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজর