প্রেমিকা বেলার অপেক্ষায় ৪০ বছর ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের বারান্দায় সরু

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারী 14, 2021 11:57:42 পূর্বাহ্ন
0
854
ভিউ

ভালোবাসা, পাওয়া-না পাওয়া আর মিলন-বিরহের এক মিশ্র অনুভূতি। কখনো বন্ধুর পথ মাড়িয়ে প্রিয় মানুষকে কাছে পাওয়ার নাম ভালোবাসা। আবার কখনো প্রিয়জনকে হা’রিয়ে দুঃখের নীল তিমিরে বসবাসের নামান্তর। মিলনের প্রত্যাশায় ব্যাকুল আর মায়ার বাঁধনে জড়ানো এই ভালোবাসার প্রতীক্ষা জনম জনম।

৬০ বছর বয়সী আবু তা’লেব সরুর কাছে ভালোবাসার নাম হারিয়ে যাওয়া প্রিয় মানুষটির জন্য ৪০টি বসন্ত ধরে অ’পেক্ষা। সরু-বেলার প্রে’ম ও বিচ্ছেদের সাক্ষী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনের সামনে অবস্থিত অ’পরাজেয় বাংলা।

১৯৮২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগে পড়ার সময় সরুর প্রে’ম হয় সহপাঠী বেলার সঙ্গে। কিন্তু একসময় পরিবারের চা’পে বেকার সরুকে ফে’লে বেলা বিয়ে করেন আরেকজনকে। তাই বেলার অ’পেক্ষায় ৪০ বছর ধরে জহুরুল হক হলের বারান্দায় থাকেন সরু। তার বিশ্বা’স কোনো না কোনো দিন এই হলেই তাকে খুঁজতে আসবে তার সেই হারিয়ে যাওয়া বেলা। তখন বেলাকে নিয়ে তার জীবন নতুন করে সাজাবেন তিনি।

আবু তা’লেব সরু বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ার সময় সে যদি দেরি করেও আসত, সে আমা’র কাছে এসে বসত। আমা’র বিশ্বা’স সে আমাকে খুঁজতে আসবে।

সরুর জীবনে ভালবাসার রং ফিকে হয়ে এলেও ভালোবেসে প্রিয়জনকে পাওয়ার আশায় নানা দুর্গম পথ পাড়ি দিতে পিছপা নন কেউ। নানা বা’ধা-বিপত্তি পেরিয়ে প্রিয়জনকে পাওয়ার মধ্যেই পরম আনন্দ। এখানেই স্বর্গীয়-অ’পার্থিব সুখও।

এক নারী বলেন, প্রে’ম জীবনে অনেক বা’ধা-বিপত্তি আসে। তারপরও প্রিয় মানুষের সঙ্গেই থাকতে চাই। আর প্রিয় মানুষকে যখন পেয়ে যায়, এটা আসলেই একটা অসাধারণ অনুভুতি।

ভালোবাসার মানুষটিকে আগলে রাখার পাশাপাশি তাকে নিয়ে জীবন যু’দ্ধে জয়ী হতে মান-অ’ভিমান ভু’লে ত্যাগের কোনো জুড়ি নেই বলেও মনে করেন তারা।