কেন্দ্রে গিয়ে করোনার টিকার নিবন্ধন সুবিধা বাতিল : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারী 11, 2021 06:19:00 অপরাহ্ন
0
80
ভিউ

করোনার টিকা প্রদানে কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন সুবিধা বাতিল করা হয়েছে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বৃহস্পতিবার এই কথা জানান। তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার থেকে অনস্পট নিবন্ধন বাতিল করা হয়েছে টিকা কেন্দ্রগুলোতে ভিড় এড়াতে এবং সুষ্ঠুভাবে টিকা কার্যক্রম পরিচালনা করতে এটা করা হয়েছে। দরকার হলে পরে আবার স্ব-শরীরে নিবন্ধন করে টিকা নেয়ার ঘোষণা দেওয়া হবে।’

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ ঘোষণা দেন। মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের অনলাইন নিবন্ধনের চেয়ে অনস্পট নিবন্ধনের সংখ্যা বেড়ে গেছে। এদিকে যারা অনলাইনে নিবন্ধন করে টিকা নিতে আসছে, তারা নানা রকম ভোগান্তিতে পড়ছে। অনস্পট নিবন্ধনের কারণে তাদেরকে এসে বসে থাকতে হচ্ছে। বয়স্করাও এসে কষ্ট পাচ্ছে। তাই আজ থেকে টিকা কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধনের সুযোগ থাকবে না।’

সমালোচনাকারীরা আগেই টিকা নিয়ে নিচ্ছেন জানিয়ে তিনি বলেন, দিনে দিনে টিকা গ্রহীতার সংখ্যা বেড়েছে। টিকা নিয়ে নানা কথাবার্তা হয়েছিল, সবকিছুকে তোয়াক্কা না করে টিকা কার্যক্রম এগিয়ে যাচ্ছে, যারা সমালোচনা করেছিল, তারাও আগে আগে টিকা নিয়ে নিচ্ছে। নিবন্ধন বাড়ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, টিকা পেতে সুরক্ষা ওয়েবসাইটে (https://surokkha.gov.bd/) এ পর্যন্ত নিবন্ধন করেছে ১০ লাখ ২৯ হাজার ৪৫৭ জন। নিবন্ধনকারীদের মধ্যে চার লাখ ৩৮ হাজার ৯৬৯ নারী এবং ৫ লাখ ৯০ হাজার ৪৭৮ জন পুরুষ। এর মধ্যে প্রথম সারির যোদ্ধা ৫ লাখ ৯৪ হাজার ৮৩৪ জন এবং সাধারণ মানুষ ৪ লাখ ৩৩ হাজার ৬২১ জন।

প্রথম ডোজ টিকা নেয়ার জন ৯ লাখ ১৪ হাজার ৬৭৬ জনকে এসএমএস পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে গত চার দিনে ৩ লাখের অধিক টিকাদান সম্পূর্ণ হয়েছে। এই কাজ যদি অন্য কোনো সংস্থা দিয়ে করানো হতো তাহলে শতাধিক কোটি টাকা খরচ হতো। এটা আমরা দুই মন্ত্রণালয় মিলে করছি, বলেন তিনি। মন্ত্রী আরো বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের অর্থনীতি এগিয়ে যাচ্ছে। আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কমেছে। করোনায় এখন যে পরিমাণ মানুষ মারা যাচ্ছে, তারচেয়ে বেশি পরিমাণ মানুষ প্রতিদিন সাপের কামড়ে, ক্যান্সারে, সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাচ্ছে। কিন্তু ওগুলোর খোঁজ-খবর আমরা রাখি না। খবর রাখি শুধু করোনার।’

জাহিদ মালেক জানান স্বাস্থ্য সেবাকে আরো ডিজিটালাইজড করা হবে, স্বাস্থ্যসেবাকে আমরা আরো গতিশীল করবো। স্বাস্থ্যসেবা আমরা আরো বাড়াবো। আমাদেরকে এই জন্য ডিজিটালাইজড হতে হবে। এ ব্যাপারে আমরা আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের সাথে বৈঠক করেছি। একনেকে খুব দ্রুতই এ ব্যাপারে আমাদের প্রস্তাবনা তুলে ধরা হবে।

সূত্র : ইউএনবি