স্বা’মী-স্ত্রী পরিচয়ে দীর্ঘদিন সং’সার, অতঃপর ধ”র্ষ’/ণ মা’ম’লা

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 21, 2021 10:29:21 অপরাহ্ন
0
855
ভিউ
প্রতীকী ছবি

বিয়ের প্র’লোভন দেখিয়ে পটুয়াখালীর দশমিনা স’রকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছা’ত্রীকে একাধিকবার ধ”ণ করার অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে।গত ১৯ জানুয়ারি রাতে উপজে’লার বড়গোপালদী এলাকা থেকে ধ’র্ষ’ক সাইফুল ইসলামকে (১৯) গ্রে’ফতার করেছে দশমিনা থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) তাকে আ’দালতের মাধ্যমে কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে।

দশমিনা থানা সূত্রে জানা গেছে, দশমিনা উপজে’লা সদরের দশমিনায় নানার বাসায় থেকে লেখাপড়া করতেন ওই ছা’ত্রী। ছা’ত্রীর বা’বা ঢাকায় কর্মরত। ওই ছা’ত্রী ঢাকায় বাবার কাছে বেড়াতে গিয়ে দশমিনা উপজে’লার বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের বড়গোপালদী গ্রামের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাহেব আলী প্যাদার ছে’লে সাইফুল ইসলামের সাথে পরিচয় হয়।

পরিচয়ের সূত্রে প্রেম ও বিয়ের প্র’লোভনে ওই ছা’ত্রীকে একাধিকবার ধ”ণ করেন সাইফুল ইসলাম। পরে প্রেমিক সাইফুল ইসলাম ছা’ত্রীকে ঢাকায় গো’পনে বিয়ে করেছে বলে ছাত্রীর নানা-নানিকে জানিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মতো দীর্ঘদিন বসবাস করেছেন।

ছা’ত্রীর নানা জানান, তাদের বিয়ের বি’ষয়টি স’ন্দেহ হলে সাইফুলের কাছে বিয়ের কাগজপত্র দেখতে চাইলে সাইফুল বিভিন্ন অজুহাত দেখান। এ ঘটনায় গত ১৯ জানুয়ারি রাতে ছা’ত্রীর নানা বা’দী হয়ে দশমিনা থানায় সাইফুলের বি’রু’দ্ধে ধ”ণের অ’ভিযোগে মা’মলা দা’য়ের করেন। দশমিনা থানা পুলিশ ওইদিন রাতেই উপজে’লার বড়গোপালদী এলাকা থেকে সাইফুলকে গ্রে’ফ’তার করে।

দশমিনা থানার ওসি মো. জসীম জানান, ছা’ত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ২০ জানুয়ারি পটুয়াখালী জেনারেল হা’সপাতা’লে পাঠানো হয়েছে। ধ”ণের অ’ভিযো’গে সাইফুল ইসলামকে গ্রে’ফ’তার করে আ’দালতের মাধ্যমে কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে।