আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়িতে তা’ণ্ডব চা’লিয়েছে পুলিশ!

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 12, 2021 04:56:04 অপরাহ্ন
0
64
ভিউ

যশোরে পুলিশ সদস্যকে মা’রপিটের অ’ভিযোগে পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপুকে আ’টকের পর ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাত পৌনে ৯টার দিকে আ’টকের পর মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়।তবে আ’টকের পর সোমবার রাতে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীর বাড়িতে ভা’ঙচুর ও তা’ণ্ডব চা’লানো হয়েছে। জে’লা আওয়ামী লীগ নেতারা অ’ভিযোগ করেছেন, পুলিশ আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়িতে এ তা’ণ্ডব চা’লিয়েছে।

তবে পুলিশ এ ব্যাপারে বিকেল ৩টা পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দেয়নি। এদিকে, মাহমুদ হাসান বিপুকে আ’টকের প্র’তিবাদে যশোরের বিভিন্ন এলাকায় বি’ক্ষো’ভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, সোমবার রাত ৮টার দিকে পুলিশলাইন্সে কর্মরত কনস্টেবল ইমরান সাদা পোশাকে পুরাতন কসবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এক নারীর সঙ্গে বসে গল্প করছিলেন। এ সময় ক্ষমতাসীন দলের কয়েকজন নেতাকর্মী সেখানে গিয়ে নারীর সঙ্গে গল্প করতে দেখে তার ও’পর চড়াও হন।

নিজের পরিচয়পত্র দেখান পুলিশ কনস্টেবল ইমরান। পরিচয় পাওয়ার পরও তারা চড়াও হন। একপর্যায়ে ইমরানকে শহীদ মিনার থেকে তুলে নিয়ে মা’রপিট করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ইমরানকে উ’দ্ধার করে। এ সময় অ’ভিযুক্তদের হেফাজতে নেয় পুলিশ। যশোর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান জানান, শহীদ মিনার এলাকায় সাদা পোশাকে থাকা দুজন পুলিশ সদস্য নারী নিয়ে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় বসেছিলেন। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন তাদের মা’রপিট করেন।

হট্টগোল দেখে পাশের শেখ আবু নাসের ক্লাব থেকে মাহমুদ হাসান বিপু এগিয়ে যান। মীমাংসা করার চেষ্টা করেন। তিনি মা’রপিটে জ’ড়িত নন। পুলিশ তাকে রাত পৌনে ৯টার দিকে তুলে নিয়ে গেছে। এদিকে, বিপুকে আ’টক নিয়ে দিনভর বি’ক্ষো’ভের পর মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ তাকে ছেড়ে দিয়েছে। তাকে জে’লা আওয়ামী লীগ কার্যালয় হয়ে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতারা অ’ভিযোগ করেছেন, এ ঘটনার পর সোমবার মধ্যরাতে পুলিশ যশোর-৬ আসনের সং’সদ সদস্য ও জে’লা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার,

যশোর জে’লা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, তার ছেলে পৌর কাউন্সিলর হাজী সুমন, জে’লা আওয়ামী লীগের সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য পৌর কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা, জে’লা যুবলীগের সদস্য মনজুর আলম, এমএম কলেজ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমান এবং যুবলীগ কর্মী সোহাগের বাড়িতে হা’মলা চা’লিয়েছে। এ সময় বাড়িগুলোতে ব্যাপক ভা’ঙচুর চা’লানো হয়। যশোর জে’লা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক জানান, তার বাড়িসহ ৫-৬ জন নেতার বাড়িতে পুলিশ হা’মলা চা’লিয়ে ভা’ঙচুর করেছে।

এদিকে এসব ঘটনার প্র’তিবাদে মঙ্গলবার সকাল থেকে জে’লা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সমানে বি’ক্ষো’ভ করেছেন নেতাকর্মীরা। ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত যশোর-চুকনগর মহাসড়কের কেশবপুরে সড়ক অ’বরোধ ও বি’ক্ষো’ভ করেন তারা। অভ’য়নগরে যশোর-খুলনা মহাসড়ক অ’বরোধ করে বি’ক্ষো’ভ হয়েছে। এ ব্যাপারে বক্তব্য নেয়ার জন্য পুলিশের একাধিক কর্মকর্তাকে ফোন দেয়া হলেও তারা আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

তবে পুলিশ সুপার মুহাম্ম’দ আশরাফ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, বিপু ও তার লোকজন পুলিশ সদস্যকে মা’রধর করে আইন ভঙ্গ করেছেন। তার বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও স্ব’রা’ষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে। শিগগিরই বি’ষয়টি নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে সাংবাদিকদের জানানো হবে। সুত্রঃ জাগো নিউজ