না’রী স’হকর্মীকে কু’প্রস্তাব, অ’ফিসে জ’ড়িয়ে ধ’রার চে’ষ্টা গ’ণপূর্তের আ’বুলের

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 12, 2021 01:50:08 অপরাহ্ন
0
91
ভিউ

সারাদেশঃ সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের উচ্চমান সহকারী আবুল হাসানের বি’রুদ্ধে ওই অফিসের এক নারীকে শ্লী’লতাহানী প্রচেষ্টার অ’ভিযোগ উঠেছে। অফিস চলাকালীন ওই নারী সহকর্মীকে আবুল হাসান তার রুমে ডেকে নিয়ে কুপ্রস্তাব দেন এবং জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করেন বলে অ’ভিযোগ। এদিকে গণপূর্ত বিভাগের ওই উচ্চমান সহকারী আবুল হাসান এ অ’ভিযোগ থেকে রেহায় পেতে বিভিন্ন জায়গায় ধর্না দিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে জানা গেছে।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বি’ষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘অ’ভিযোগ পাওয়ার পর তিন সদস্যের একটি ত’দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ত’দন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।’ গত ৩১ ডিসেম্বর দুপুর দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে উল্লেখ করে রোববার (১০ জানুয়ারি) বিকালে নি’র্যাতিত ওই নারী আবুল হাসানের বি’রুদ্ধে সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অ’ভিযোগ দা’য়ের করেছেন।

অ’ভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন- সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের উচ্চমান সহকারী মো. আবুল হাসান প্রায়ই তাকে বিভিন্নভাবে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু লোকলজ্জার ভ’য়ে তিনি অফিসের কর্মকর্তাদের কিছু বলতে পারেননি। তবে অফিসের অন্য কয়েকজন নারী সহকর্মীকে তিনি বি’ষয়টি জানান। গত ৩১ ডিসেম্বর বেলা ১২টার দিকে অফিসের হিসাবরক্ষক হাসানুর রহমানের মাধ্যমে উচ্চমান সহকারী মো. আবুল হাসান ওই নারীকে তার রুমে কাজের কথা বলে ডেকে পাঠান।

দাপ্তরিক কাজ সেরে ওই নারী বেলা সোয়া ১টার দিকে উচ্চমান সহকারী আবুল হাসানের অফিসকক্ষে গেলে তাকে কুপ্রস্তাব দেন আবুল হাসান। এক পর্যায়ে অফিস কক্ষে তাকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টাও করেন। এসময় তার চি’ৎকারে অন‌্য সহকর্মীরা সেখানে হাজির হন। এদিকে ওই অফিসের অন‌্য কর্তকর্তারা জানান, ঘটনার পর নি’র্যাতনের শি’কার ওই নারী অফিসের মধ্যেই জুতা খুলে আবুল হাসানের মুখে নি’ক্ষেপ করেন। পরবর্তীতে নির্বাহী প্রকৌশলীকে লিখিতভাবে জানিয়ে এ ঘটনার প্রতিকার চান। একইসঙ্গে নিজের নিরাপত্তা চান।

এ বি’ষয়ে কথা বলতে সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের উচ্চমান সহকারী আবুল হাসান বলেন, ‘আমার পাশে লোকজন রয়েছে। এখন কথা বলতে পারছি না। পরে কথা হবে।’ এরপর তিনি ফোনের লাইনটি বিচ্ছিন্ন করে দেন। সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বি’ষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওই নারী সহকর্মীর লিখিত অ’ভিযোগ পাওয়ার পর সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের স্টাফ অফিসার ফিরোজ আলীকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি ত’দন্ত কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে।

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কমিটি ত’দন্ত রিপোর্ট জমা দেবে। তিনি বলেন, ‘উচ্চমান সহকারী আবুল হাসান লিখিতভাবে পাল্টা একটি অ’ভিযোগ করেছেন। দুটি অ’ভিযোগই ত’দন্ত করে দেখা হচ্ছে। ত’দন্ত রিপোর্ট আসার পর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ সাতক্ষীরা সদর থানার (ওসি) ত’দন্ত বোরহান উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় থানায় কোনো অ’ভিযোগ হয়েছে কি না তা তার জানা নেই।