ক্ষমতার দাপটে এমপি ফিরোজের ভাইয়ের কাণ্ড!

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 9, 2021 12:32:56 অপরাহ্ন
0
25
ভিউ

পটুয়াখালীর বাউফল উপজে’লার কালাইয়া লঞ্চঘাটে একটি মার্কে’টের ২৮টি দোকানের শাটারের সামনে দেয়াল তোলা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (০৮ জানুয়ারি) সকালে স্থানীয় সং’সদ সদস্য (এমপি) আ স ম ফিরোজের ছোট ভাই ক্ষমতার অ’পব্যবহারে করে এ কাজটি করেন।

এ ব্যাপারে এমপির ছোট ভাই এ কে এম ফরিদ মোল্লা বলেন, ‘লঞ্চঘাটের রাস্তার পশ্চিম পাশে যেখানে দেয়াল নির্মাণ হচ্ছে সেখানে আমাদের জমি রয়েছে। ওই জমিতে বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ করছি। কারো জায়গা বা মার্কেট দ’খল করে বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ করা হয়নি।’

সরেজমিন দেখা গেছে, কালাইয়া লঞ্চঘাটের অভিমুখে একটি স’রকারি রাস্তার পশ্চিম পাশে হাজী শহিদ আলম নামের একটি মার্কে’টের সম্মুখ ভাগের ফুটপাতের জায়গা দ’খল করে ইট দিয়ে দেয়াল নির্মাণ করা হচ্ছে। আট থেকে ১০ জন শ্র’মিক কাজ করছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে মধ্য বয়সী এক নির্মাণ শ্র’মিক বলেন, ‘এমপির ছোট ভাই ফরিদ মোল্লা আমাদের দ্বারা এ কাজ করাচ্ছেন।’ প্রায় একই ধরনের বক্তব্য আরো দুই নির্মাণ শ্র’মিকের।

ওই মার্কে’টের মালিক শহিদ আলম অ’ভিযোগ করেন, তিনি কালাইয়া লঞ্চঘাটের অভিমুখে রাস্তার পশ্চিম পাশে ৬৫ শতাংশ জমি ক্রয়সূত্রে মালিক। রাস্তার পূর্ব পাশের ৬৫ শতাংশ জমির মালিক হলেন স্থানীয় এমপির স্ত্রী দেলোয়ারা রুনু। গতকাল শুক্রবার সকালে ফরিদ ইট দিয়ে দেয়াল নির্মাণ করে শহিদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেন। এ সময় শহীদ বা’ধা দিলে ধমক দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাড়িয়ে দেন ফরিদ।

শহিদ আলম বলেন, ‘ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ফরিদ স’রকারি সড়কের পাশে আমার নিজস্ব সম্পত্তিতে নির্মিত বিপণিবিতানের সম্মুখে দেয়াল নির্মাণ করে সব স্টল বন্ধ করে দিয়েছে। প্রভাবশালী হওয়ায় প্র’তিবাদ করে কোনো লাভ হচ্ছে না। কোথায় গিয়ে বিচার চাইব?’

এ ব্যাপারে বাউফল উপজে’লা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন বলেন, ‘বি’ষয়টি আমি শুনেছি। স’রকারি রাস্তার পাশে দেয়াল নির্মাণ করে কারো যাতায়াতে বা’ধা কিংবা মার্কে’টে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা অন্যায়। এ বি’ষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’