জো’র-জ’বরদ’স্তির আ’লামত নেই

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 8, 2021 09:06:21 অপরাহ্ন
0
76
ভিউ

অ’তিরিক্ত র’ক্তক্ষ’রণেই বন্ধুর বাসায় মৃ’ত্যু হয়েছে ঢাকার কলাবাগান এলাকায় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল মাস্টারমাইন্ডের ‘ও’ লেভেল পর্যায়ের শি’ক্ষার্থী আনুশকাহ নূর আমিনের। তবে জো’র-জ’বরদ’স্তির কোনো আ’লামত পাওয়া যায়নি। কিন্তু স্পর্শকাতর স্থানে কিছু ‘ই’ন’জুরি’ পাওয়া গেছে। ম’য়নাত’দন্ত শেষে এসব তথ্য জানিয়েছেন চি’কিৎসকেরা।

এ ঘটনায় ওই ছা’ত্রীর বা’বা বা’দী হয়ে কলাবাগান থানায় একটি মা’ম’লা দা’য়ের করেছেন। মা’মলার একমাত্র আ’সামি ছা’ত্রীর বন্ধু ইফতেখার ফারদিন দিহান (১৮) আ’দালতে স্বী’কারো’ক্তিমূলক জ’বানব’ন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে কা’রাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদলত।

শুক্রবার বিকালে ওই ছা’ত্রীর ম’য়নাত’দন্ত শেষ হয়। এরপর এ বি’ষয়ে সাং’বাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হা’সপাতালের ফ’রেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ। তিনি বলেন, ম’য়নাত’দন্তকালে আমরা দেখতে পাই তার প্রচুর র’ক্তক্ষ’রণ হয়েছে। আর সেটি হয়েছে মূলত তার ‘ভ্যা’জাই’নাল’ এবং ‘রে’ক্টাম’ র’ক্তক্ষ’রণ। দুইভাবে র’ক্তক্ষ’রণের ফলেই তার মৃ’ত্যু হয়েছে। এটা আ’পাতদৃষ্টিতে বি”কৃত যৌ’না’চার মনে হয়েছে বলে জানান তিনি।

ধ”ণ বা জো’রাজুরির কোনো চি’হ্ন পেয়েছেন কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. সোহেল বলেন, এখানে জো’র-জ’বর’দস্তির কোনো আ’লামত পাইনি। তবে আমরা দুই পথেই কিছু ‘ই’নজু’রি’ পেয়েছি। সেই ই’নজু’রিগুলোর জন্যই র’ক্তক্ষ’রণ হয়েছে এবং মা”রা গেছে।

এটা গণধ”ণের মতো কোনো ঘটনা কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে এই চি’কিৎসক বলেন, আমরা তার দে’হ থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছি। ডিএনএ প্রোফাইলিংয়ের জন্য পাঠিয়েছি। রিপোর্ট আসলে এ বি’ষয়ে বলা যাবে।

নি’হতের প’রিবার ও পুলিশ সূত্র জানায়, আনুশকাহর বাসা ধানমণ্ডির সোবহানবাগে। ব’ন্ধুর সঙ্গে দেখা করার কথা বলে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বাসা থেকে বের হয়। পরে ডলফিন গলিতে এক বন্ধুর বাসায় যায়। সেখানে ওই ছা’ত্রী অ’সুস্থ হয়ে পড়লে তার বন্ধু অন্য তিন ব’ন্ধুকে ফোন করে আনে।

পরে তারা শি’ক্ষার্থীকে চি’কিৎসার জন্য আনোয়ার খান মডার্ন মে’ডিকেল কলেজ হা’সপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ক’র্তব্যরত চি’কিৎসক ছা’ত্রীকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

তবে আনুশকাহর এক আ’ত্মীয় বলেন, ওই বন্ধুর বাসায় গেলে ধ”ণের ফলে প্রচুর র’ক্তক্ষ’রণ হয়। এ কারণে তাকে হা’সপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ বি’ষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগের উ’পকমিশনার (ডি’সি) মো. সাজ্জাদুর রহমান বলেন, আনোয়ার খান মডার্ন হা’সপাতাল থেকে আমরা তার লা’শ উ’দ্ধার করেছি।

সূত্রঃ যুগান্তর