মাদরাসার শৌচাগারে স’মকা’মিতায় লি’প্ত তিন শি’ক্ষক, গো’পনে ভি’ডিও ক’রলেন ছাত্র

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জানুয়ারী 8, 2021 04:57:44 অপরাহ্ন
0
1297
ভিউ

মা’দরাসার শৌচা’গারে সমকামিতায় লিপ্ত থাকার সময় হাতে নাতে ধ’রা পড়েছেন ওই মাদ’রাসার দুই জন সিনিয়র এবং একজন নবীন শিক্ষক। বরিশাল জে’লার নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকার নজরুল একাডেমিক মাদ’রাসায় এ ঘটনা ঘটে। অধ্যক্ষ মা’ওলানা জোবায়ের বলেন, টিফিন পিরি’য়ডের সময় গণিতের সিনিয়র শিক্ষক মোজাম্মেল হক ও ৯ম-১০ম শ্রেণির ইংরেজির নবীন শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন পরষ্পর কথা বলতে বলতে ছাত্রদের শৌচা’গারে প্রবেশ করেন।

শিক্ষক মিলনায়তন থেকে তাদের দুইজনকে একইসঙ্গে ছাত্রদের শৌচাগা’রের দিকে যেতে দেখে আরেক সিনিয়র শিক্ষক মা’ওলানা মোহাম্ম’দ খসরুও তাদের সঙ্গে যোগ দেন। তারা কোম’লমতি শি’শু খুঁজতেই সেখানে গিয়েছিলেন বলে পরে জানা যায়। ওই সময় মাদ’রাসার বিভিন্ন শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের কাজ চলছিলো বলে শৌচা’গারটি ছাত্রশূন্য ছিল। তবে কোনো একটি শ্রেণির জনৈক ছাত্র প্রস্রা’ব করার উদ্দেশ্যে শৌচাগা’রের কাছাকাছি গেলে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ দেখতে পায়।

সেই সঙ্গে ধ’স্তাধ’স্তির শব্দ শুনতে পায়। ছাত্রটি তখন শৌ’চাগারের পেছনের দিকে এসে লাগোয়া পেয়ারা গাছের ও’পরে উঠে জানালা দিয়ে দেখতে পায় দুই শিক্ষক মিলে অ’পর শিক্ষককে জো’রপূর্বক পা’য়ু স’ঙ্গম করছেন। পুরো ঘটনাটি ওই ছাত্র তার মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখে। এক পর্যায়ে শিক্ষকরা তার উপস্থিতি টের পেয়ে গেলে ছা’ত্রটিও দ্রু’ত গাছ থেকে নেমে দৌড়ে শ্রেণিক’ক্ষে ঢুকে যায় বলে তাকে আর চিহ্নিত করতে পারেনি ওই শিক্ষকরা।

কিন্তু মো’বাইল ফোনে ধার’ণকৃত ভিডি’ওটি ওই দিনই অন্য ছা’ত্রদের ফোনে এমনকি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। বি’ষয়টি জানাজানি হওয়ার পর শিক্ষা প্রতি’ষ্ঠানের সুনাম রক্ষার্থে তাদের বি’রুদ্ধে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা নেয়ার সুপা’রিশ করে মা’দরাসা পরি’চালনা কমিটি। সেই সঙ্গে অ’ভিভাবকরাও নিজ নিজ স’ন্তানকে আর এ প্রতিষ্ঠানে পড়াবেন না বলে হু’মকি দিলে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

উপযু’ক্ত প্র’মাণের ভিত্তিতে তিন শি’ক্ষককে মা’দরাসা থেকে ব’হিষ্কার করে পু’লিশের হাতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান অধ্যক্ষ মা’ওলানা জোবায়ের। সুত্রঃ ইনডিপেন্ডেন্ট নিউজ