পুলিশ ধর্ষক’কে ধরতে ছদ্মবেশে আরেক পুলিশ

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : জুন ২, ২০১৯ ০৭:২৪:২৪ অপরাহ্ন
0
278
views

সারাদেশঃ শিশু ধর্ষণের সময় চিৎকার-চেঁচামেচিতে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে পালিয়ে যায় ধর্ষক। তারপর থেকেই লাপাত্তা সে। অনেকত খোঁজাখুজির পরও যখন তাকে পাওয়া যাচ্ছিল না, ঠিক সে সময়েই ধর্ষকের খোঁজ পেয়ে ছদ্মবেশ ধারণ করে তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

PUB

এ ঘটনাটি কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়নের। ঐ ইউনিয়ানেরেএকজন গ্রাম পুলিশ মোঃ সুন্দর আলীকে (৫০) রবিবার ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে ছদ্মবেশে ধরলেন বুড়িচং থানার পুলিশ।

জেলার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ ও যদুপুর গ্রামের মোঃ মোশতাক আলীর ছেলে সুন্দর আলী (৫০) গ্রাম পুলিশ গত ১০ মার্চ ২০১৯ইং তারিখ সকালে যদুপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী সুমাইয়া ( ছদ্মনাম) স্কুল থেকে জোরপূর্বকভাবে আবদুল জব্বারের বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করার সময় শিশুটির চিৎকারে এলাকার কিছু মহিলারা শুনতে পেয়ে ওই ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাকে উদ্ধার করে।

শিশুটির শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন আছে বলে ওই মহিলারা জানান। এলাকাবাসীর উত্তেজনা দেখে সুন্দর আলী পালিয়ে যায়। শিশুটির পিতা সাইদুল হক এর পরিপ্রেক্ষিতে বুড়িচং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ করার পর সুন্দর আলী দূর থেকে শিশুটির পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকী ধমকী প্রদান করেন। হুমকী ধমকী দিয়ে ব্যর্থ হয়ে এলাকার কিছু অসাধু লোকের আশ্রয় নিয়ে টাকার মাধ্যমে থানার অভিযোগটি তুলে নেওয়ার পায়তারা করেন।

রবিবার সকালে বিশ্বস্ত সূত্রে বুড়িচং থানার এস আই ইয়াছিন তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ছদ্মবেশে তাকে একটি ঘর থেকে গ্রেফতার করেন। এ ব্যাপারে এস আই ইয়াছিন জানায়, সুন্দর আলীর বিরোদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) এর ২২ ধারা মোতাবেক জবানবন্দি প্রদান করেন ভিকটিম।

প্রাথমিক তদন্তে অত্র মামলায় ঘটনাটি সত্য প্রমাণিত হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রবিবার বিকেলে তাকে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।এস/কে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here