আপনি বিয়ে করতে চান অবশ্যই এগুলো জেনে রাখবেন!!

স্বাধীন নিউজ ২৪.কম
প্রকাশ : মে ৮, ২০১৯ ০১:৫১:৪৯ অপরাহ্ন
0
94
views

রতন বল, ঢাকাঃ ৮ মে বিশ্ব থ্যালাসিমিয়া দিবস। থ্যালাসিমিয়া রোগ এবং এর প্রতিকার সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়।

PUB

স্বামী-স্ত্রী দুজনই থ্যালাসিমিয়া রোগের বাহক হলে সন্তানদের থ্যালাসিমিয়া রোগ হতে পারে। রক্তের ইলেকট্রোফরেসিস পরীক্ষার মাধ্যমে কেউ থ্যালাসিমিয়া বাহক কিনা জানা যায়। বিয়ের আগে হবু দম্পতিদের রক্ত পরীক্ষা করলে তাদের সন্তানদের মধ্যে এই রোগ প্রতিরোধ সম্ভব।

আপনিও চাইলে জেনে নিতে পারেন আপনার আগত সন্তান থ্যালাসেমিক কি_না??

>>> নিয়মঃ

১> আপনার নিকটস্থ সরকারী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান ।

২> মেডিসিন বিভাগ/ হেমোটোলজি বিভাগে গিয়ে দায়িত্ব রত ডাক্তারের সাথে কথা বলুন ।

৩> তাকে বলুন যে, আপনি সুস্থ আছেন, প্রতি মাসে আপনার শরীরে অতিরিক্ত রক্তও নিতে হচ্ছে না, এমনও হতে পারে বরং আপনি একজন নিয়মিত রক্ত দাতা, তার পরেও আপনি আপনার, ও আপনার আগত সন্তানের সুস্থতার সচেতনতার জন্য আপনি জানতে চান আপনি থ্যালাসোমিয়া বাহক কি_না?? কারন আপনিও ও আপনার স্ত্রী উভয়ই যদি থ্যালাসেমিয়া বাহক হোন তখন_ই কেমল মাত্র আপনার সন্তান থ্যালাসেমিয়া রোগ নিয়ে জন্মগ্রহন করবে, আপনার সন্তান থ্যালাসেমিয়া রোগ নিয়ে জন্মগ্রহন করার আর কোন মাধ্যম_ই কিন্তু নাই, যদি না আপনিও আপনার স্ত্রী উভয়ই থ্যালাসেমিয়া বাহক না হন।

৪> তখন ডাক্তার আপনাকে, রক্ত পরিক্ষা- হিমোগ্লোবিন ইলেক্ট্রফোরেসিস পরিক্ষা দিবেন। (প্রয়োজনে DNA এনালাইসিস এবং প্রি-নেটাল ডায়াগনোসিস পরিক্ষা দিবেন)।

৫> মাত্র ১৫০ টাকা।

৬> রেজাল্ট হাতে আসর পরে ডাক্তারের সাথে কথা বলবেন। আশা করি আপনি সুস্থ আছেন, আপনি যদি সুস্থ থাকেন তাহলে,
তাহলে ১০০% নিশ্চিত আপনার আগত সন্তান ও সুস্থ আছে, সে থ্যালাসেমিয়া মুক্ত।

আর যদি আপনি সুস্থ না থাকেন, মানে আপনি যদি থ্যালাসেমিয়া বাহক হোন তাহলে অবশ্যই আপনি যাকে বিয়ে করার কথা চিন্তা করছেন, অথবা যার সাথে আপনার বিয়ে হচ্ছে, অথবা হবে, তাকে অবশ্যই-অবশ্যই এই পরিক্ষা টা করাবেন, যদি উনি থ্যালাসেমিয়া বাহক না হয় তাহলে সমস্যা নাই।

আর যদি উনিও আপনার মত থ্যালাসেমিয়া বাহক হয় তাহলে অবশ্যই-অবশ্যই আপনাদের ২ থ্যালাসেমিয়া বাহকের বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া চরম বোকামি ছাড়া আর কিছুই না। কারন তাহলে আপনার বাচ্চা থ্যালাসেমিয়া রোগ নিয়ে জন্মগ্রহন করবে ১০০% নিশ্চিত। আর এই পরীক্ষা টা আমাদের সকলের করে নেওয়া অবশ্যই জরুরি ।

কেন_না, বাংলাদেশে মোট জনসংখ্যার প্রায় ৫.৫৫% লোক থ্যালাসেমিয়া বাহক, বাংলাদেশের ১৮কোটি মানুষের মাঝে ১কোটি মানুষ থ্যালাসেমিয়া বাহক, মানে প্রতি ১৮জনের মাঝে একজন থ্যালাসেমিয়া বাহক, মানে আপনার ফেইজবুক ফ্রেন্ড লিষ্টে যদি ৫০০০ ফ্রেন্ড থাকে তার মাঝেই প্রায় ৩০০ ফ্রেন্ড এই প্রাণ ঘাতি রোগ থ্যালাসেমিয়া বাহক, হয়ে আমাদের চার পাশে ঘুরে বেড়াচ্ছেন, যা আমি-আপনি অথবা উনি নিজেও জানেন না যে উনি থ্যালাসেমিয়া বাহক কি_না!!!!!

থ্যালাসেমিয়া মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শুধু মাত্র, আমার-আপনার একটুখানি সচেতনতাই যথেষ্ট ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here